শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ঊর্ধমুখী জ্বালানি তেলের দাম

ঊর্ধমুখী জ্বালানি তেলের দাম

নতুন বছরে বিশ্ববাজারে বেশ চাঙা হয়ে ওঠেছে জ্বালানি তেলের দাম। বছরের প্রথম মাস জানুয়ারিতে জ্বালানি তেলের দামে বড় উত্থান হওয়ার পর ফেব্রুয়ারি মাসের শুরুতেও অব্যাহত রয়েছে দাম বাড়ার প্রবণতা। ফলে দফায় দফায় দাম বেড়ে সবধরনের জ্বালানি তেলের দাম নতুন উচ্চতায় উঠেছে। এক’শ ডলারের কাছাকাছি চলে এসেছে অপরিশোধিত তেল এবং ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম। ২০১৪ সালের পর জ্বালানি তেলের এমন দাম আর দেখা যায়নি।

গত এক সপ্তাহে বিশ্ববাজারে প্রায় ছয় শতাংশ বেড়েছে অপরিশোধিত তেলের দাম। প্রায় পাঁচ শতাংশ বেড়েছে ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম। এবং হিটিং অয়েলের দাম বেড়েছে ৬ শতাংশ। এর আগে চলতি বছরের জানুয়ারিতে অপরিশোধিত তেলের দাম বাড়ে ১৬ শতাংশের বেশি। প্রায় সাড়ে ১৫ শতাংশ দাম বাড়ে ব্রেন্ট ক্রুড অয়েল। এছাড়া হিটিং অয়েলের দাম বাড়ে ৫০ শতাংশের ওপরে।

বছরের ব্যবধানে বর্তমানে বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত তেল ৬১ দশমিক ৭১ শতাংশ বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে। এক বছরের ব্যবধানে ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম বেড়েছে ৫৬ দশমিক ৩৭ শতাংশ। এবং হিটিং অয়েলের দাম বেড়েছে ৬৭ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

তথ্য পর্যালোচনায় দেখা গেছে, জ্বালানি তেলের দামে বড় লাফ দিয়ে নতুন বছর ২০২২ সাল শুরু হয়। নতুন বছরের প্রথম সপ্তাহেই প্রতি ব্যারেল অপরিশোধিত তেলের দাম ৪ দশমিক ৯৫ শতাংশ বেড়ে ৭৮ দশমিক ৯৩ ডলারে উঠে আসে। এবং দ্বিতীয় সপ্তাহে ৬ দশমিক ৭৯ শতাংশ বেড়ে প্রতি ব্যারেল অপরিশোধিত তেলের দাম দাঁড়ায় ৮৪ দশমিক ২৬ ডলারে।

আরও পড়ুনঃ  অব্যাহত রয়েছে রফতানি আয়ের পতন

এবং বছরের তৃতীয় সপ্তাহে ১ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ বেড়ে প্রতি ব্যারেল অপরিশোধিত তেলের দাম দাঁড়ায় ৮৫ দশমিক ১৩ ডলারে। এবং চতুর্থ সপ্তাহে ২ দশমিক ৫৩ শতাংশ বেড়ে অপরিশোধিত তেলের ব্যারেলের দাম দাঁড়ায় ৮৭ দশমিক ২৯ ডলারে। ফলে বছরের প্রথম মাসেই অপরিশোধিত তেলের দাম বাড়ে ১৬ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ।

এমন পরিস্থিতিতে গেল এক সপ্তাহে অপরিশোধিত তেলের দাম ৫ দশমিক ৮৯ শতাংশ বেড়েছে। ফলে প্রতি ব্যারেল অপরিশোধিত তেলের দাম দাঁড়িয়েছে ৯১ দশমিক ৯৩ ডলারে। কিন্তু সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসের লেনদেনের এক পর্যায়ে প্রতি ব্যারেল অপরিশোধিত তেলের দাম ৯৩ দশমিক শূন্য ৫ ডলারে ওঠে। ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরের পর অপরিশোধিত তেলের এত দাম আর দেখা যায়নি।

আনন্দবাজার/টি এস পি

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন