সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভোজ্যতেলের ফের ডানা

  • বেশি দাম রাখায় ৫ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

কিছুটা বিরতি দিয়ে ফের বাড়ছে ভোজ্যতেলের দাম। সরকারের ঝুলিয়ে দেওয়া নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে বেশি দামে ভোজ্যতেল বিক্রি হচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে, ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট কারসাজি করে দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। তবে সরকারও কঠোর অবস্থান নিয়েছে। দাম বাড়ালেই তাকে শাস্তির আওয়াতায় আসতে হবে। জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর দাম নিয়ন্ত্রণে অভিযান চালাচ্ছে।

বাজার অনুসন্ধানে জানা যায়, গত এক সপ্তাহ ধরে সয়াবিন তেলের দাম বেশি নেয়া হচ্ছে। রমজান শুরুর পর থেকে গত এক সপ্তাহে প্রতি লিটার তেলের দাম বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে ৬ টাকা করে। খোলা সয়াবিন তেলের দাম বেড়েছে লিটারে ৮ টাকা করে।

ভোজ্যতেলের দাম নিয়ন্ত্রণে গতকাল শনিবার রাজধানীর শাহ আলী এলাকায় পাইকারি বাজারে অভিযান চালিয়েছে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এসময় নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি দামে বিক্রি করায় ৫ প্রতিষ্ঠানকে ৪ লাখ টাকা জরিমানা করেছে অধিদপ্তর। অভিযান পরিচালনা করেন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মন্ডল, ফাহমিনা আক্তার ও মাগফুর রহমান। এতে সার্বিক সহযোগিতা করেন আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) নারী সদস্যরা।

অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার জানান, আমরা জানতে পেরেছি সয়াবিন তেলের দাম মিলে দাম স্বাভাবিক থাকলেও পাইকারি পর্যায়ে দাম বাড়ানো হয়। বিষয়টি নিশ্চিত হতে শনিবার প্রথমে মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেটে অভিযান চালাই। সেখানে দাম স্বাভাবিক পাই। পরে শাহ আলী এলাকায় অভিযান চালানো হয়। সেখানে পাইকারি কিছু প্রতিষ্ঠান বেশি দামে ভোজ্যতেল বিক্রির প্রমাণ পাওয়া যায়। এই অপরাধে পাঁচ ব্যবসায়ীকে ৪ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এগুলোর মধ্যে ৩ প্রতিষ্ঠানকে এক লাখ টাকা করে আর বাকি ২ প্রতিষ্ঠানকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়।

আরও পড়ুনঃ  সূচকের পতনে চলছে লেনদেন

সরকারের বেঁধে দেওয়া নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে কেউ যদি ভোজ্যতেলের দাম বেশি নেয়, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। যে অনিয়ম করবে তাকে অর্থদণ্ডসহ সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়ার কথা বলা হয়। এছাড়া সিন্ডিকেট করে কেউ যদি দাম বাড়ানোর চেষ্টা করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে বিশেষ আইনে মামলা করা হবে। অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বলেন, আমরা সব ব্যবসায়ীকে বলতে চাই, আইনের মধ্যে থেকে ব্যবসা করুন। সরকারি বিধি নিষেধ মেনে চলুন। অনিয়ম করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

টিসিবি তথ্য অনুযায়ী, ৯ এপ্রিল ঢাকার বাজারে খুচরা এক লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম ১৬৮ টাকা। এক সপ্তাহ আগে ছিল ১৬৫ টাকা। খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ১৫৮ টাকা, যা এক সপ্তাহ আগে ছিল ১৫৪ টাকা। প্রতি লিটার পামওয়েলের (খোলা) দাম ১৪৬ টাকা, যা আগের সপ্তাহে ছিল ১৪৩ টাকা।

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন