সোমবার, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ব্যাংক পরিদর্শনে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কমিটি

ব্যাংক পরিদর্শনে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কমিটি

করোনা মহামারির পর রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে ডলারের বিনিময় হারে দেখা দিয়েছে অস্থিরতা। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ঘোষিত বিনিময় হার মানছে না ব্যাংকগুলো। তারা বিনিময় করছে অতিরিক্ত দরে। খোলা বাজারে ডলারের দামে হয়েছে সেঞ্চুরি। যদিও এখন কিছুটা কমে একশ ছুঁইছুঁই। এ নিয়ে অভিযোগ উঠছে বেশ কয়েকদিন ধরে। পরিস্থিতি সামাল দিতে নেয়া হয়েছে নানা উদ্যোগ। ডলার সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক। পাশাপাশি বিলাসী পণ্য আমদানি নিরুৎসাহিত করা হয়েছে ব্যাংকগুলোকে। বাতিল করা হয়েছে কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ। এবার সরকারি-বেসরকারি ব্যাংক পরিদর্শন শুরু করেছে বাংলাদেশ ব্যাংকের চারটি দল।

গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে কয়েকটি ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট বিভাগ ও কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেছে তারা। দুপুর থেকে শুরু হয় ট্রেজারি ও ফরেন এক্সচেঞ্জ বিভাগের নথি ও ডলার সংগ্রহের অনলাইন ও নগদে বেচাকেনার তথ্য যাচাইয়ের কাজ। এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, ডলারের পরিস্থিতি জানার জন্য ব্যাংকগুলোতে সরেজমিনে পরিদর্শন করে দেখবে বাংলাদেশ ব্যাংক। এজন্য চারটি টিম কাজ শুরু করেছে। সিরাজুল ইসলাম বলেন, বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ থেকে ব্যাংকগুলোকে ডলার সরবরাহ করা হচ্ছে। বিলাসী পণ্য আমদানি নিরুৎসাহিত করার পাশাপাশি কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া রফতানি আয় আনার ক্ষেত্রে  ব্যাংকগুলোর মনোযোগ বাড়ানোর তাগিদ দেয়া হয়েছে। রেমিট্যান্স বাড়ানোর ব্যাপারে ব্যাংকগুলোকে উদ্যোগ নেয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে ডলার সংকটের কারণে বেশ কিছুদিন ধরেই টাকার মান কমছে। গত সোমবার একদিনেই ডলারের বিপরীতে ৮০ পয়সা দর হারায় টাকা। দেশের ইতিহাসে এর আগে কখনও একদিনে টাকার এত বড় দরপতন হয়নি। মঙ্গলবার কোনও কোনও মানি এক্সচেঞ্জ ও খুচরায় ডলার বিক্রেতারা ১০৩.৫ টাকা পর্যন্ত দরে বিক্রি করেন। তবে এর একদিন পরেই ডলারের দাম কিছুটা কমে ৯৭ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে।

Print Friendly, PDF & Email
আরও পড়ুনঃ  ভ্যাট ফাঁকির ৮ কোটি টাকা পরিশোধ করেছে পূবালী ব্যাংক

সংবাদটি শেয়ার করুন