বুধবার, ১০ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৭শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

অবসর ভেঙে ফিরেই শুনলেন আইসিসি তাকে নিষিদ্ধ করেছে

অবসর ভেঙে ফিরেই শুনলেন আইসিসি তাকে নিষিদ্ধ করেছে

ক্যারিয়ারে মাত্র ৪ টেস্ট খেলা ২৬ বছর বয়সেই টেস্টকে বিদায় বলে দিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কান তারকা ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। লক্ষ ছিলো ওয়ানডে আর টি-টোয়েন্টি। সর্বশেষ বাংলাদেশের সাথে ওয়ানডে সিরিজ হারার পর গতকাল হঠাৎ শোনা গেল, ২২ মার্চ থেকে শুরু হতে যাওয়া দুই টেস্টের সিরিজের জন্য অবসর ভেঙে ফিরছেন হাসারাঙ্গা! এমনকি এই সিরিজের জন্য আইপিএলের শুরুর দিকের কয়েকটা ম্যাচও বাদ দিতে যাচ্ছেন শ্রীলঙ্কান লেগ স্পিনার!

এমন খবরের ২৪ ঘণ্টাও যেতে না যেতেই আজ আবার এল নতুন খবর। হাসারাঙ্গাকে আইসিসি নিষিদ্ধ করেছে! বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের দুই টেস্টেই নিষিদ্ধ থাকছেন তিনি!

জানা গেছে, বাংলাদেশের বিপক্ষে সদ্যই শেষ হওয়া ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে গতকাল হাসারাঙ্গা আচরণবিধি ভেঙেছেন। আইসিসি আজ (১৯ মার্চ ) বিবৃতিতে জানিয়েছে, আইসিসির আচরণবিধির ২.৮ ধারা অনুযায়ী ‘আন্তর্জাতিক ম্যাচে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের প্রতি অসম্মান দেখানো’র কারণে এই নিষেধাজ্ঞা পাচ্ছেন হাসারাঙ্গা। ঘটনাটা ঘটেছে গতকাল চট্টগ্রামে তৃতীয় ওয়ানডেতে বাংলাদেশের ইনিংসের সময়ে। ৩৭তম ওভার শেষে আম্পায়ারের কাছ থেকে ক্যাপ বুঝে নেওয়ার সময়ে আম্পায়ারকে কটু কথা বলেছেন শ্রীলঙ্কার টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক।

ফলে, এই অপরাধের জন্য হাসারাঙ্গার ম্যাচ ফি-র ৫০ শতাংশ কেটে নেওয়া হয়, পাশাপাশি দেওয়া হয় তিনটি ডিমেরিট পয়েন্ট। এতে সর্বশেষ ২৪ মাসে হাসারাঙ্গার ‘ডিমেরিট পয়েন্টে’র খতিয়ানে জমা হয় ৮ পয়েন্ট!

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে আসার আগে নিজেদের মাটিতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচেও আম্পায়ারকে খোঁচা মেরে পাঁচটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছিলেন হাসারাঙ্গা। যে কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে নিষিদ্ধ ছিলেন তিনি। এখন এই পাঁচ পয়েন্ট যোগ হওয়ায় গত ২৪ মাসের মধ্যে তাঁর ডিমেরিট পয়েন্ট যেহেতু ৮ হয়েছে, শাস্তির মাত্রাও বেড়েছে। নিয়ম অনুযায়ী, ৮ ডিমেরিট পয়েন্টের জন্য ৪টি ‘সাসপেনশন পয়েন্ট’ পেয়েছেন হাসারাঙ্গা। ৪ সাসপেনশন পয়েন্ট মানে, দুটি টেস্ট অথবা ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে ৪টি ম্যাচের মধ্যে যেটি আগে হবে তাতে নিষিদ্ধ থাকবেন হাসারাঙ্গা। যেহেতু বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের দুটি ম্যাচই সূচিতে আগে আসছে, তাই হাসারাঙ্গা এই দুই টেস্টেই নিষিদ্ধ থাকছেন।

আরও পড়ুনঃ  নারী বিশ্বকাপের সূচি ঘোষণা করলো আইসিসি

আইসিসি হাসারাঙ্গার পাশাপাশি তৃতীয় ওয়ানডেতে ‘আম্পায়ারের সঙ্গে হাত মেলানোর সময়ে কটুক্তি করায়’ শ্রীলঙ্কার ওয়ানডে অধিনায়ক কুশল মেন্ডিসকেও ৫০ শতাংশ ম্যাচ ফি জরিমানা করেছে।

তবে, টেস্টে ফেরানো হাসারাঙ্গাকে শ্রীলঙ্কার কৌশলের অংশ হিসেবে দেখছেন কেউ কেউ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভক্তরা বলছেন, আম্পায়ারের সাথে অসদাচরণের জন্য দুই ম্যাচে সাসপেন্ড এবং বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই টেস্ট ছাড়া শ্রীলঙ্কার আর খেলা না থাকায় বিশ্বকাপের প্রথম দুই ম্যাচ খেলতে পারতেন না হাসারাঙ্গা। ঠিক এ কারণেই অবসর ভেঙে টেস্টে ফেরার ঘোষণা করেছেন বলে মনে করছেন অনেকে।

এদিকে, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গতকাল (১৯ মার্চ) ওয়ানডে সিরিজ জয়ের পরই টেস্টের জন্য দল ঘোষণা করে বিসিবি। দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের দলে অনুমিতভাবেই ছিলেন মুশফিকুর রহিম। তবে সিলেটে শুরু হতে যাওয়া সিরিজের প্রথম টেস্টের আগে মিস্টার ডিপেন্ডেবলকে হারিয়ে বড় ধাক্কা খেল বাংলাদেশ। আঙুলের চোটের কারণে লঙ্কানদের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ থেকে ছিটকে গেছেন মুশফিক। গতকাল শেষ ওয়ানডেতে ফিল্ডিংয়ের সময় আঙ্গুলে ব্যথা পান তিনি। সেসময় ফিজিওর সেবা নিয়ে পুরো ৫০ ওভার ফিল্ডিংয়ের পর ব্যাটিংও করেছিলেন মুশফিক। তবে আজ জানা গেছে, এই ডানহাতি ব্যাটসম্যানের আঙ্গুলে চিড় ধরা পড়েছে। জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজ বিসিবির এক সূত্রের বরাত দিয়ে মুশফিকের ছিটকে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। বিসিবি এক সূত্র ক্রিকবাজকে জানান, সে (মুশফিক) ফ্র্যাকচারের কারণে সিরিজ থেকে ছিটকে গেছে।

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন