রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

আম্পায়ারের সিদ্ধান্তই শেষ কথা, কিসের বিতর্ক- শাদাব খান

আম্পায়ারের সিদ্ধান্তই শেষ কথা, কিসের বিতর্ক- শাদাব খান

পাকিস্তানের বিপক্ষে জিতলেই প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শেষ চারে বাংলাদেশ। এমন সমিকরণের ম্যাচে দারুণ শুরুর পর ব্যাট হাতে ফ্লপ শাকিব আল হাসানের দল।

সেমিতে যাওয়ার মঞ্চটা তো তৈরিই করে দিয়েছিল ডাচরা। রোববার সেই মঞ্চে আলো ছড়াতে পারলেন না টাইগাররা। শুরুতে অ্যাডিলেডের সবুজ গালিচায় বাংলাদেশ টস জিতে নেমে ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে তুলল ১২৭ রান। জবাবে পাকিস্তান ১৮তম ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে পা রাখে সেমিফাইনালে।

এমন ম্যাচে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে থার্ড আম্পায়ারের বিতর্কিত সিদ্ধান্তে আউট হয়েছেন সাকিব। তাঁর আউট ঘিরে নতুন বিতর্কের শুরু হয়েছে। তবে, শাকিবের আউট হওয়ার মধ্যে বিতর্ক দেখছেন না পাকিস্তানের শাদাব খান। শাদাবের বলেই আউট হয়েছেন শাকিব। বল তাঁর পায়ে লাগার আগে ব্যাটে লেগেছিল। ডিআরএস নিয়েও উইকেট বাঁচাতে পারেননি শাকিব। শাকিবের উইকেট নেওয়া শাদাব অবশ্য বিতর্কের কিছু দেখছেন না। ম্যাচ শেষ হওয়ার আগেই মুখ খুলেছেন তিনি।

শাদাব খান বলেন, ‘‘বিতর্কের কী আছে! আম্পায়াররা আউট দিয়েছেন। সুতরাং শাকিব আউট। আমাদের বোলাররা যথেষ্ট ভাল বল করেছে। উইকেটের চরিত্র অনুযায়ী বল করেছি আমরা।’’

ইনিংসের পরেই শাকিবের আউট নিয়ে নিজের মতামত জানিয়ে দেন পাকিস্তানের সহ-অধিনায়ক। আম্পায়ারের সিদ্ধান্তকেই চূড়ান্ত বলে মনে নেওয়ার পক্ষে শাদাব।

১১তম ওভারের চতুর্থ বলে ফিরে যান বাংলাদেশের ওপেনার সৌম্য সরকার। ব্যাট করতে নামেন শাকিব। পাকিস্তানের বোলার শাদাবের স্লো ফুলটস শাকিবের ব্যাটে লাগার পর পায়ে লেগে অন্য দিকে যায়। শাদাব এলবিডব্লিউয়ের আবেদন করার পর মাঠের আম্পায়ার কিছু ক্ষণ অপেক্ষা করে আউট দেন। শাকিব ডিআরএস নেন। রিপ্লেতে স্পষ্ট দেখা যায়, বল আগে ব্যাটে লেগেছে। কিন্তু থার্ড আম্পায়ার বলে দেন, ব্যাটের সঙ্গে বলের কোনও যোগাযোগ হয়নি। স্নিকোমিটারে যা ধরা পড়েছে তা ব্যাটের সঙ্গে পিচের সংঘর্ষের শব্দ। বল সরাসরি শাকিবের পায়ে লেগেছে। তিনি আউটের সিদ্ধান্ত নেন।

আরও পড়ুনঃ  যুক্তরাষ্ট্রে খেলতে চান নেইমার

তবে, শাকিব বিশ্বাসই করতে পারছিলেন। প্রথমে অবাক হয়ে যান। তার পরে মাঠে থাকা দুই আম্পায়ারের সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে পড়েন। তাঁকে খানিকটা জোর করেই মাঠ থেকে বের করে দেন আম্পায়াররা।

খেলায় অনেক সময়ই দলগুলিকে খারাপ সিদ্ধান্তের শিকার হতে হয়। তা নিয়ে হইচই করার কোনও কারণ দেখছেন না শাদাব। পাক ক্রিকেটার শাদাব বিষয়টিকে গুরুত্ব দিতে না চাইলেও বাংলাদেশ শিবির বিষয়টিকে বঞ্চনা হিসাবেই দেখছে।

এর আগে ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচে বিরাট কোহলির ফেক ফিল্ডিং, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচে শাকিবের আউটের মতো সিদ্ধান্তগুলো বিপক্ষে গিয়েছে। না হলে বিশ্বকাপের ফলাফল অন্যরকম হতে পারত বলে মনে করছে ক্রিকেট প্রেমী দর্শকরা।

টাইগারদের ৫ উইকেটে হারিয়ে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে পৌঁছে গেলো পাকিস্তান। যেখানে আগামী ৯ নভেম্বর তাদের প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। আর ১০ নভেম্বর দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ভারত লড়বে ইংল্যান্ডের সঙ্গে।

আনন্দবাজার/কআ

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন