সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হলুদ ফুলে বর্ণিল মাঠ

হলুদ ফুলে বর্ণিল মাঠ

অনুকূল আবহাওয়া আর রোগ বালাই না থাকায় দিনাজপুরের দক্ষিণের চার উপজেলায় এবার সরিষার আবাদ ভালো হয়েছে। ভোজ্য তেলের দর বেড়ে যাওয়ায় কৃষকরা সরিষা আবাদের দিকে ঝুঁকছেন। সরিষার হলুদ ফুলে বর্ণিল সাজে সেজেছে মাঠের পর মাঠ। হাঁসি ফুটেছে কৃষকদের মুখে। সরিষার ভালো ফলন হবে এমনটাই জানিয়েছে কৃষিবিভাগ।

দিনাজপুরের দক্ষিণাঞ্চলের সবচেয়ে বেশি সরিষা চাষ হয় হিলি-হাকিমপুর ও নবাবগঞ্জ উপজেলায়। স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে দেশে বিভিন্ন মোকামে পাঠানো হয় এখানকার সরিষা। কৃষিবিভাগ সরিষা আবাদে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছে কৃষকদের। প্রশিক্ষণ আর প্রযুক্তির মাধ্যমে বেশি করে সরিষা আবাদে উদ্বুদ্ধ করতে কৃষি প্রণোদনা হিসেবে সার, বীজ বিতরণ করেছে স্থানীয় কৃষি অধিদপ্তর। চাষ বাড়লে এখানকার কৃষকদের ভাগ্য উন্নয়নের চাবি কাঠি হবে এ সরিষা। এদিকে সরিষা ঘরে তোলার পর ইরি-বোরো ধান লাগনো হবে। এবারে হিলি-হাকিমপুর উপজেলায় ৮৩০ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ হয়েছে।

সরিষা চাষিরা জানায়, অন্যান্য ফসলের তুলনায় সরিষা আবাদে খরচ কম, লাভ বেশি। এ কারণে কৃষকরা সরিষা আবাদে বেশি আগ্রহী। কৃষককে সরিষা চাষে আগ্রহ বাড়াতে মাঠ পর্যায়ে কারিগরি সহায়তা প্রদান করছে স্থানীয় কৃষি অধিদপ্তর। ভোজ্যতেলের দর বেড়ে ওঠায় কৃষকরা সরিষা আবাদে জোর দিয়েছে। ক্ষুদ্র ঋণ সহায়তা পেলে আবাদ ৩ গুন বেড়ে যাবে এমনটিই প্রত্যাশা এ অঞ্চলের কৃষকদের।

আনন্দবাজার/এম.আর

Print Friendly, PDF & Email
আরও পড়ুনঃ  লাল রঙ করা এলাকায় বন্ধ থাকবে সব ধরনের চলাচল

সংবাদটি শেয়ার করুন