শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধগুলো দ্রুত মেরামত করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে: এনামুল হক শামীম

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম বলেছেন, ঘুর্নিঝড় আম্পানের প্রভাবে উপকূলীয় এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাধগুলো দ্রুত মেরামত করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

মন্ত্রণালয়ের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারি, পানি উন্নয়ন বোর্ডসহ সংশ্লিষ্ট সবার ছুটি বাতিল করা হয়েছে। গতকাল রাতেও বিভিন্ন এলাকায় অবস্থান স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে নিয়ে কাজ করেছেন। ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাধগুলো দ্রুত মেরামত করা হবে। আজ বৃহস্পতিবার (২১ মে ) দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি একথা বলেন।

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম বলেন, করোনাভাইরাস দুর্যোগ কাটিয়ে ওঠার জন্য আমরা যখন ব্যাপকভাবে কাজ করে যাচ্ছি, তখন আরেকটা দুর্যোগ চলে এসেছে। এটা প্রাকৃতিক দুর্যোগ, এতে কারও হাত নেই। এটা আমরা ঠেকাতে পারব না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মানুষের জানমাল রক্ষার জন্য যতটুকু বিশেষ ব্যবস্থা আমরা নিতে পারি, সেটা আমরা নিয়ে যাচ্ছি। আর অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে এবারের ঘূর্ণিঝড়টা অনেক শক্তিশালী। যার কারণে আমাদের (পানি বোর্ডের বাধের) সক্ষমতার চেয়ে বেশি। যে কারণে অনেক এলাকায় বাধ ভেঙ্গে গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। বেড়িবাধগুলোও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এনামুল হক শামীম আরো বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে ১৬ হাজার ৬ শ কিলোমিটার বাঁধ রয়েছে। এরমধ্যে উপকূল এলাকায় রয়েছে ৫ হাজার ৭৯৭ কিলোমিটার। ডুবন্ত বাধ রয়েছে আড়াই হাজার কিলোমিটার। এসব বাধগুলো অনেকটাই পুরানো। সেসব বাধগুলো প্রসস্ত ও উচু করার প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। দ্রুতই কাজ শুরু হবে।

এছাড়াও তিনি বলেন, আমরা উপকূলীয় এলাকা বিশেষ করে সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, পটুয়াখালী, ভোলা এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাধগুলো তালিকা তৈরি করেছি। এগুলো দ্র্রুত মেরামত করার কাজ শুরু করতে নিদের্শনা দিয়েছি।

আরও পড়ুনঃ  ভারতে আঘাত হেনেছে ‘নিভার’

আনন্দবাজার/শাহী

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন