রবিবার, ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মেডিয়েশন হলো বিরোধ নিষ্পত্তির বিকল্প একটি পদ্ধতি -নীলফামারীতে বিচারপতি

নীলফামারীতে শতাধীক আইনজীবীদের নিয়ে দিনব্যাপী মেডিয়েশন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার(৭ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল মেডিয়েশন সোসাইটি এবং নীলফামারী জেলা আইনজীবী সমিতির আয়োজনে কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি আন্তর্জাতিক স্বর্ণপদক প্রাপ্ত মেডিয়েটর আহমেদ সোহেল।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, ‘মূলত মেডিয়েশন হলো বিরোধ নিষ্পত্তির বিকল্প একটি পদ্ধতি। যে পদ্ধতি আদালত-ট্রাইব্যুনালের প্রচলিত পদ্ধতির বাইরে থেকে অভিযোগ নিষ্পত্তিতে ব্যবহৃত হয়। বর্তমানে ভারতীয় উপমহাদেশে মেডিয়েশন পদ্ধতি খুবই গুরুত্বের সঙ্গে অনুসরণ করা হচ্ছে। যার মধ্যে পঞ্চায়েত অন্যতম। পঞ্চায়তের সিদ্ধান্ত বিচার বিভাগ দ্বারাও সমাদৃত হয়ে থাকে।’
তিনি আরও বলেন, ‘মেডিয়েশন পদ্ধতিতে একজন মেডিয়েটরের মাধ্যমেই অভিযোগ নিষ্পত্তি করা হয়। যেখানে উভয়পক্ষের অংশগ্রহণের মাধ্যমে সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করা হয়। ফলে উভয়পক্ষের সর্বসম্মতিতে সিদ্ধান্তে পৌঁছানো সম্ভব হয়।’ এছাড়াও আইনজীবী, বিচারক ও এর সঙ্গে সম্পৃক্ত সকলকে মেডিয়েশনের মাধ্যমে মামলা নিষ্পত্তিতে আগ্রহী হয়ে এগিয়ে আসারও আহ্বান জানান তিনি। কেননা, মামলা নিষ্পত্তিতে বিলম্ব হলে তা বিচারের ব্যাপ্তিকে ক্ষুন্ন করে। এতে মামলার পক্ষ সমূহের খরচ বেড়ে যায় এবং আদালতে মামলার জট বৃদ্ধি পেতে থাকে। মামলা জট বিচার বিভাগের জন্য বড় একটি চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়। বিভিন্ন দিক বিবেচনা করে মামলা নিষ্পত্তিতে বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তির পন্থা হিসেবে মেডিয়েশন ভবিষ্যতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলেও মনে করেন।

জেলা আইনজীবী সমিতির মিলনায়তনে সমিতির সভাপতি এ্যাডভোকেট মমতাজুল হকের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল মেডিয়েশন সোসাইটির চেয়ারম্যান এস এন গোস্বামী। কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, নীলফামারীর অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-১ ও ভারপ্রাপ্ত জেলা দায়রা জজ মোছা: আরিফা ইয়াসমিন মুক্তা, চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো: সাইফুল ইসলাম।

আরও পড়ুনঃ  ৩য় বারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে ওয়ার্ল্ড মার্কেটিং সামিট

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের বিচারক(যুগ্ম জেলা জজ) মো: মতিউর রহমান, সমিতির সাবেক সভাপতি ও সিনিয়র এ্যাডভোকেট মোঃ আব্দুল ওহাব চৌধুরী ও তুষার কান্তি রায়, সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও পাবলিক প্রসিকিউটর এ্যাডভোকেট অক্ষয় কুমার রায়, মানবাধিকার ব্যক্তিত্ব বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডভোকেট ফুলু সরকার, মানবাধিকার ব্যক্তিত্ব এ্যাডভোকেট আব্দুল কুদ্দুস মাখন প্রমুখ।

কর্মশালায় আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট এ্যাক্রিডেটেড মেডিয়েটর এ্যাডভোকেট হুমায়ুন কবির সিকদার, ব্যারিস্টার নিশাত মাহমুদ, এ্যাডভোকেট মো: জুবায়ের আল মামুন, আফসানা বেগম ও হুমায়রা নূর। সমিতির লাইব্রেরী সম্পাদক এ্যাডভোকেট মো: গোলাম মোস্তফা সজীব কর্মশালাটির সঞ্চালনা করেন। দিনব্যাপী এই কর্মশালায় নানা বিষয়ে তুলে ধরেন আলোচকরা।’

এসময় সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সহদেব চন্দ্র রায়, জেলা আইনজীবী সমিতির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আল-মাসুদ চৌধুরীসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন। এর আগে প্রধান অতিথিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান জেলা আইনজীবী সমিতির নেতৃবৃন্দরা।

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন