শুক্রবার, ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ভাড়া বাড়ালে কমবে যাত্রী

ভাড়া বাড়ালে কমবে যাত্রী
  • জেট ফুয়েলের দাম বৃদ্ধিতে শঙ্কায় বিমান
  • জ্বালানি মন্ত্রণালয়ে এয়ারলাইন্স মালিকরা

বিমানের জ্বালানি জেট ফুয়েলের দাম বেড়ে যাওয়ায় বিমান পরিচালন ব্যয় নিয়ে শঙ্কায় পড়েছেন এয়ারলাইন্স মালিকরা। ব্যয় সামাল দিতে যাত্রীভাড়া বাড়াতে হবে। তবে ভাড়া বাড়ালে কমে যেতে পারে যাত্রী। এমন দুষ্টুচক্রে পড়েছে এয়ারলাইন্স কোম্পানিগুলো। মহামারির অভিঘাত থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর পর গত কয়েক মাস ধরেই বিমানের জ্বালানি জেট ফুয়েলের দাম বেড়েছে। গত দুই বছরে প্রায় দ্বিগুন হয়েছে লিটার প্রতি দাম। এতে বিমান পরিচালন ব্যয়ে বড় ধরনের ধাক্কা সামলাতে হচ্ছে। আর সেজন্যই দেশের অভ্যন্তরীণ রুটে জ্বালানির দাম আরেক দফা বাড়ানো হয়েছে।

তবে অভ্যন্তরীণ রুটে জেট ফুয়েলের দাম বাড়ানো নিয়ে সমালোচনা করেছেন অ্যাভিয়েশন ইন্ডাস্ট্রির স্টেকহোল্ডাররা। তারা বলেছেন, বিশ্ববাজারে দাম স্থিতিশীল থাকলেও দেশে অযৌক্তিকভাবে বাড়ানো হয়েছে। এতে বিমানভাড়া বেড়ে গেলে যাত্রী কমে যেতে পারে। যার প্রভাব পড়বে এয়ারলাইন্সসহ পর্যটন খাতে।

এমন পরিস্থিতি থেকে উত্তোরণের জন্য জেট ফুয়েলের দাম সঠিক সমন্বয়ের দাবিতে এবার বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের কাছে আর্জি জানালেন বেসরকারি এয়ারলাইন্স মালিকরা। গতকাল রোববার বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ে এবিষয়ে একটি চিঠি দেয় এভিয়েশন অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (এওএবি)।

এওএবির মহাসচিব ও নভোএয়ার লিমিটেড ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম মফিজুর রহমান এবং এওএবির সহ-সভাপতি ও ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল্লাহ্ আল মামুন এ চিঠি দেন।

চিঠির একটি অংশে বলা হয়েছে, এয়ারলাইন্স পরিচালনা ব্যয়ের ৪০-৪৬ ভাগই জ্বালানি খরচের ওপর নির্ভরশীল। তবে বাংলাদেশে অতি মূল্যায়িত জেট ফুয়েলের কারণে এভিয়েশন খাত অস্তিত্বের সংকটে নিপতিত। এভিয়েশন খাত দীর্ঘ করোনাকালীন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে উপনীত হয়। ইউক্রেন যুদ্ধের ফলে জ্বালানি তেলের অত্যাধিক মূল্যবৃদ্ধি এই খাতে উপর্যুপরি আঘাত করেছে। ফলে এয়ারলাইন্সগুলোর দেউলিয়া ঘোষণা শুধু সময়ের ব্যাপার মাত্র।

আরও পড়ুনঃ  বাংলাদেশি শ্রমিকদের কোটা কমছে কুয়েতে

এতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, জেট ফুয়েল বিশেষ করে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটের জন্য বাংলাদেশ প্রায়ই আন্তর্জাতিক বাজার মূল্যের চেয়ে ৩০-৪০ শতাংশ বেশি মূল্যে ক্রয় করতে হয়। ফলশ্রুতিতে জিএমজি, ইউনাইটেড এবং রিজেন্টের মতো সম্ভাবনাময় এয়ারলাইন্সগুলো দেউলিয়া হয়েছে। জেট ফুয়েল বিক্রয়ের একক কর্তৃত্ব পদ্মা অয়েল কোম্পানির থাকায় এয়ারলাইন্সগুলো প্রতিযোগিতামূলক দামে জেট ফুয়েল ক্রয়ের অধিকার থেকে বঞ্চিত।

বিমানের জ্বালানি জেট ফুয়েল দেশে উৎপাদন না হওয়ায় চাহিদা মেটাতে বিদেশ থেকে আমদানি করে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি)। এই সংস্থার অঙ্গপ্রতিষ্ঠান পদ্মা অয়েল কোম্পানি সেই জ্বালানি এয়ারলাইন্সগুলোতে সরবরাহ করে থাকে। সম্প্রতি জেট ফুয়েলের দাম লিটার প্রতি ৫ টাকা বাড়িয়ে ১৩০ টাকা করা হয়েছে। গত ২৬ অক্টোবর থেকে যা কার্যকর হয়েছে। যদিও আন্তর্জাতিক রুটের জন্য জেট ফুয়েলের দাম প্রতি লিটার ১.০৯ ডলার থেকে কমিয়ে ১ ডলার করা হয়েছে।

খাত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, জেট ফুয়েলের দাম গত প্রায় দুই বছরে ১৭ দফায় বাড়িয়েছে পদ্মা অয়েল কোম্পানি। এতে দাম বেড়েছে ১৭০ শতাংশ। জ্বালানির এমন উচ্চমূল্য সামাল দিতে এয়ারলাইন্সগুলো যাত্রীভাড়া বাড়াতে বাধ্য হয়েছেন। ফলে সব চাপ এসে পড়েছে যাত্রীদের ওপর। আকাশপথে ক্রমাগত যাত্রীসংখ্যা কমে আসছে। ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে বিমান সংস্থাগুলোকে। আর যার সুদূরপ্রসারী নেতিবাচক প্রভাব গিয়ে পড়ছে দেশের পর্যটন খাতেও।

এয়ারলাইন্সগুলোর দেয়া তথ্য অনুযায়ী, বছর দুয়েক আগেও বিমানের অভ্যন্তরীণ রুটে যেখানে সর্বনিম্ন ভাড়া দুই থেকে আড়াই হাজার ছিল, এখন তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার টাকারও বেশি। জেট ফুয়েলের দাম বাড়ার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, সৈয়দপুর, রাজশাহী রুটের ভাড়া বেড়েছে দ্বিগুণ হারে। এর ওপর ভাড়া আরো বাড়লে নিশ্চিতভাবে লোকসানের মুখে পড়তে হবে বিমান সংস্থাগুলোকে। এমন আশঙ্কার কথা বলছেন বিমান সংস্থার দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা।

আরও পড়ুনঃ  কৃষিতে বিমুখ তরুণ প্রজন্ম

বিমান খাতের বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এয়ারলাইন্সের ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ পরিচালন ব্যয় হয় জ্বালানিতে। সে কারণে জেট ফুয়েলের দাম যত বাড়বে, ব্যয়ও তত বাড়বে। অনেক দেশে কম দামে জ্বালানি কিনে যাত্রীদের কমদামে টিকেট দিচ্ছে। তবে বাংলাদেশে অতিরিক্ত দামের প্রভাবে বিমান সংস্থাগুলোর রাজস্ব দিন দিন কমে যাচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে বৈশ্বিক প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে পড়বে দেশের এয়ারলাইন্সগুলো।

আনন্দবাজার/শহক

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন