রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দাদির পেটে নাতনির জন্ম

দাদির পেটে নাতনির জন্ম

যুক্তরাষ্ট্র ইউটাহ রাজ্যে নাতনিকে জন্ম দিলেন দাদি! শুনতে অবাক লাগলেও মার্কিন ম্যাগাজিন পিপলের প্রতিবেদনে বলা হয়, ৫৬ বছর বয়সী ন্যানসি হকের ছেলে জেফ হকের স্ত্রীর একটি রোগের কারণে জরায়ু অপসারণ করতে হয়। ফলে তার গর্ভধারণের সম্ভাবনা একেবারেই শেষ হয়ে যায়।

ঠিক এমন পরিস্থিতিতে ছেলের সন্তানের জন্ম দেওয়ার জন্য নিজ গর্ভকে ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নেন দাদি ন্যানসি। আর এরপরই সারোগ্যাসি পদ্ধতিতে নিজের ছেলের সন্তানকে ধারণ করেন তিনি। এক নাতনিকে নিয়ে এ পর্যন্ত পঞ্চমবারের মতো শিশুর জন্ম দিলেন ন্যানসি।

জেফ পেশায় একজন ওয়েব ডেভলপার। মায়ের গর্ভে নিজের সন্তান জন্ম দেয়ার অনুভূতি জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘দারুণ মুহূর্ত ছিল। মায়ের শিশু জন্মানো দেখতে পারে কয়জন!’

চিকিৎসক রাসেল ফাউলক বলেন, ‘দাদির গর্ভে নাতনি থাকাটা স্বাভাবিক ঘটনা নয়। এখানে বয়স কোনো বাধা হতে পারেনি। ’

প্রতিবেদনে বলা হয়, নাতনিকে জন্ম দেয়ার আগে ৯ ঘণ্টার মতো প্রসব ব্যাথায় ভুগেছেন ন্যানসি। এ বয়সে নাতনির জন্ম দেয়ার পর রোমাঞ্চিত তিনি। তবে ন্যানসির একটু কষ্টও আছে কারণ মা অন্যজন হওয়ায় শিশুটিকে নিজের কাছে রাখতে পারছেন না তিনি। সদ্যোজাত ওই শিশুর নাম দাদির ইচ্ছা অনুয়ায়ী রাখা হয়েছে হান্নাহ। জেফ জানান, তার মা হঠাৎ মধ্যরাতে জেগে ওঠার পর একটি কণ্ঠস্বরকে বলে উঠতে শোনেন, ‘আমার নাম হান্নাহ। ’

ইউটাহর টেক ইউনিভার্সিটিতে চাকরি করেন ন্যানসি হক। অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর কোনোরকম পরীক্ষা ছাড়াই তিনি আত্মবিশ্বাসী ছিলেন যে নাতনির জন্ম দেবেন। ন্যানসি ও হান্নাহ দুটোর অর্থই দয়া।

আরও পড়ুনঃ  চকরিয়া পৌরসভা ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি

আনন্দবাজার/কআ

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন