রবিবার, ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাসপাতালে শ্মশানের সাইনবোর্ড!

হাসপাতালে শ্মশানের সাইনবোর্ড!
  • জমি দখলের চেষ্টায় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ক্ষোভ প্রকাশ
  • সরকারি জায়গা দখলে মরিয়া চক্রকে চিহ্নিত করতে নির্দেশনা

সিলেট নগরীর পূর্ব শাহী ঈদগাহে সংক্রামক ব্যধি হাসপাতালের ষাট বছরের পুরনো জমিকে পারিবারিক শ্মশান দাবি করে সাইনবোর্ড লাগিয়ে দিয়েছে একটি পক্ষ। যে জায়গাটিতে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দ্বিতীয় ইউনিট স্থাপনের সিদ্ধান্ত হয় গত বছর। এ নিয়ে সিলেটে চলছে তোলপাড়। বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন খোদ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এমপি।

সিলেট স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রমতে, সংক্রামক ব্যধি হাসপাতাল ভেঙে সেখানে এক হাজার শয্যার ওসমানী হাসপাতালের দ্বিতীয় ইউনিট স্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। গত বছরের মে মাসে হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তবে চলতি বছরের ২৫ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় ললিত মোহন নাথ নামে একজনের উত্তরাধিকারীরা হাসপাতালের দুদিকে পারিবারিক শ্মশানের জায়গা দাবি করে তারা দুটি সাইনবোর্ড লাগিয়ে দিয়েছেন। পরে হাসপাতাল চত্বরে শামিয়ানা টানিয়ে পারিবারিক অনুষ্ঠানও করেন তারা।

এ বিষয়ে ললিত মোহন নাথের উত্তরাধিকারী রতন লাল নাথ বেসরকারি জানান, দুই একর ৫৬ শতক জায়গার স্থাপিত সংক্রামক ব্যধি হাসপাতালের সম্পূর্ণ জমি তাদের নামে। ম্যাপ এবং ফর্সায়ও তাদের নাম রয়েছে। হাসপাতালের নামে কোনো কাগজ নেই। এ ব্যাপারে সিলেট জেলা প্রশাসক বরাবরে গত বছরের জুন মাসে লিখিত আবেদন করেছেন তারা।

তবে তাদের এ দাবি মিথ্যা আখ্যায়িত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক হিমাংশু লাল রায় বলেন, এ জমির রেকর্ডপত্র সব কিছু সরকারি সম্পত্তি হিসেবে নথিবদ্ধ আছে। এখানে এক হাজার শয্যার ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দ্বিতীয় ইউনিট স্থাপন করা হবে। এ সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়ে গেছে।

আরও পড়ুনঃ  রেকর্ড ভেঙে দেশে সর্বোচ্চ রোগী শনাক্ত

হিমাংশু লাল রায় বলেন, ভূমি মন্ত্রণালয়ে খতিয়ানসমূহে এবং ১৯৫২ সালের ভূমি হুকুম দখল ক্ষমতাবলে ২০০০ সালের ২ নভেম্বর প্রকাশিত গেজেটে এই ভূমি সরকারের পক্ষে সংক্রামক ব্যধি হাসপাতালের নামে রেকর্ড করা। তাই এ জমির মালিকানা অন্য কেউ দাবি করলে সেটি ভুয়া বলে প্রমাণিত হবে।

এদিকে সিলেট সংক্রামক ব্যধি হাসপাতালের জায়গা দখলের পাঁয়তারা করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এমপি। গত শনিবার সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নবাগত নার্সিং কর্মকর্তাদের বরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেয়ার সময় তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। একই সঙ্গে সেই চক্রকে চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সিলেট আওয়ামী লীগ নেতাদের প্রতি নির্দেশনা দেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী সে সময় আরো, সিলেট নগরীর শাহী ঈদগাহে দ্বিতীয় ওসমানী হাসপাতাল নির্মাণ করা হবে। এজন্য ছয় মাস আগে ওইখানে জায়গাও নির্ধারণ করা হয়েছে। শুনতে পেয়েছি সেই সরকারি জায়গা দখল করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে একটি চক্র। আমি সিলেট মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের বলছি- দ্রুত সেই চক্রকে চিহ্নিত করুন, যাতে বেআইনিভাবে কেউ এই সরকারি জায়গা দখল করতে না পারে এবং দ্রুত সেই জায়গা হাসপাতাল স্থাপনের জন্য প্রস্তুত করা হোক।

আনন্দবাজার/শহক

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন