সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাকিস্তানকে ধারে তেল দেয়া বন্ধ করল সৌদি

অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশনে (ওআইসি) বিভাজনের হুমকি দেয়ার পর পাকিস্তানকে  ঋণ হিসেবে জ্বালানি তেল সরবরাহ করা হতো তা বন্ধ করে দিল সৌদি আরব। সৌদির সঙ্গে পাকিস্তানের বিবাদের কেন্দ্র সেই কাশ্মীর।

২০১৮ সালে ধুঁকতে থাকা দেশকে বাঁচানের জন্য সৌদির কাছ থেকে ৬.২ বিলিয়ন ডলার ঋণ নেয় ইমরান খান সরকার। ওই ঋণের মধ্যে ৩.২ বিলিয়ন ডলার পাকিস্তানকে দেয়া হয় তেল হিসেবে। চার মাস আগে ওই ঋণের ১ বিলিয়ন ডলার সৌদিকে ফেরত দিয়েছে পাকিস্তান। তারপর গত দুই মাস হলো ওই ব্যবস্থার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। এখন নতুন করে আর ওই পদ্ধতিতে ঋণ দিচ্ছে না সৌদি সরকার।

সৌদির এমন সিদ্ধান্তের বিষয়ে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কান্ট্রিজ নিয়ে সৌদিকে হুমকি দেয়ার পরই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে চটেছে সৌদি সরকার। সম্প্রতি পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি বলেন, কাশ্মীর নিয়ে সৌদি সরকার যদি ওআইসির বিদেশমন্ত্রীদের বৈঠক না ডাকেন তাহলে ইমরান খান নিজে তার বন্ধু রাষ্ট্রগুলোকে নিয়ে বৈঠক করবে।

এদিকে বহুবার কাশ্মীর নিয়ে কোনো আলোচনা করতে অস্বীকার করেছে ওআইসি। গত বছর কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিলের পর থেকে ওআইসিতে কাশ্মীরের বিষযটি তোলার জন্য আদাজল খেয়ে লেগে রয়েছে ইমরান খান সরকার।

আনন্দবাজার/শহক

Print Friendly, PDF & Email
আরও পড়ুনঃ  ভারতকে ‘বড় বেইজ্জতি’র হুঁশিয়ারি দিলো চীন

সংবাদটি শেয়ার করুন