রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

পুঁজিবাজার সংস্কারে তাগিদ

পুঁজিবাজার সংস্কারে তাগিদ
  • বিএসইসির সঙ্গে বৈঠকে আইএমএফ
  • অবকাঠামো উন্নয়নসহ অটোমেশনে জোর

দেশের পুঁজিবাজারের অবকাঠামো উন্নয়নের পাশাপাশি সংস্কার চায় আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। একই সঙ্গে অটোমেশনের ওপর জোর দিয়েছে তারা। গতকাল সোমবার এক বৈঠকে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনকে (বিএসইসি) আইএমএফ এসব কথা বলেছেন।

আইএমএফের একটি প্রতিনিধিদল সকাল সাড়ে ১০টায় আগারগাওয়ে বিএসইসির নিজস্ব কার্যালয়ে আসে। বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামের নেতৃত্বে প্রতিনিধিদলটি আইএমএফের সঙ্গে বৈঠক করে। বৈঠক শেষে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

রেজাউল করিম বলেন, দেশের পুঁজিবাজারের সার্বিক অবকাঠামো নিয়ে আইএমএফের সঙ্গে বিএসইসি আলোচনা হয়েছে। এসময় পুঁজিবাজার সংস্কারের তাগিদের দিয়েছেন আইএমএফ। এক্ষেত্রে যেকোনো ধরনের কারিগরি সহায়তায় বিএসইসিকে আশ্বাস দিয়েছে তারা।

এটি একটি রুটিন বৈঠক জানিয়ে রেজাউল করিম বলেন, আইএমএফ যতবার বাংলাদেশে আসে ততোবারই কমিশনের সঙ্গে বসে। প্রতিবারে আইএমএফ এ ধরনের আলোচনা করে। এবারে আইএমএফ কোনো ধরনের সুপারিশ করেনি। তারা মূলত দেশের পুঁজিবাজার উন্নয়নে রিস্ক ম্যানেজমেন্টসহ অবকাঠামো উন্নয়নে কথা বলেছে। তবে এবারে অটোমেশন বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছে। তবে ফ্লোর প্রাইস নিয়ে কোন কথা হয়নি।

নানান উদ্যোগ নিয়ে কথা হয়েছে জানিয়ে রেজাউল করিম বলেন, আইএমএফ আলোচনা করেছে বিএসইসি পুঁজিবাজারের উন্নয়নে কী কী উদ্যোগ নিয়েছে সেটা নিয়ে। উন্নয়নে ধারা অব্যাহত রাখার ব্যাপারেও কথা হয়েছে। ক্যাপিটাল মার্কেট স্টাবিলাইজেশন ফান্ডের ব্যাপারে তারা খুব সন্তোষ প্রকাশ করেছে। এটা বাজার উন্নয়নে অনেক ভূমিকা রাখবে বলে মন্তব্যে করে তারা কমিশনকে ধন্যবাদও জানিয়েছে।

আরও পড়ুনঃ  পুঁজিবাজারে টানা তিন কার্যদিবস বাড়লো সূচক

নতুন পণ্য আনার ব্যাপারে কথা হয়েছে জানিয়ে রেজাউল করিম বলেন, রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টমেন্ট ট্রাস্ট (রিটস) এ ধরনের প্রোডাক্ট ডেরিভেটিবসহ নতুন নতুন পণ্য কীভাবে আনা যায় সে বিষয়ে তারা (আইএমএফ) সার্বিক সহযোগিতা করবে। এসব বিষয়ে আরও বেশি উদ্যোগ নেয়ার জন্য তারা বিএসইসিকে অনুরোধ করেছে। এছাড়া কমোডিটি এক্সচেঞ্জসহ পুঁজিবাজার অবকাঠামো উন্নয়নে তারা কারিগরি সহযোগিতা করবে।

বিএসইসি যে কমোডিটি এক্সচেঞ্জ নিয়ে কাজ এগিয়েছে সেটা নিয়ে তারা সন্তোষ প্রকাশ করেছে। পরিবেশবান্ধব বন্ড বাজারে আনতে তারা সহযোগিতা করবে বলে জানিয়েছে। এ ধরনের বন্ডের চাহিদা ও জোগান বাড়াতে তারা সহযোগিতা করতে চেয়েছে। ফ্লোর প্রাইস প্রসঙ্গে রেজাউল করিম বলেন, ফ্লোর প্রাইস কনসেপ্টটি তাদের (আইএমএফ) জানা নেই। তাই ফ্লোর প্রাইস নিয়ে কোনো আলোচনার সুযোগও নেই।

আলোচনায় পুঁজিবাজার উন্নয়নে প্রযুক্তিগত সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন আইএমএফ জানিয়ে মুঠোফোনে বিএসইসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, আলোচনা ইতিবাচক। ডেরিভেটিবসহ নতুন নতুন পণ্য আনতে তারা (আইএমএফ) সার্বিক সহযোগিতা করবে। পাশাপাশি বন্ড ও সুকুক বিষয়ে তাদের ইতিবাচক মনোভাব প্রকাশ করেন

আনন্দবাজার/শহক

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন