শুক্রবার, ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইসরায়েলের পক্ষে গুপ্তচরবৃত্তি: কাতারে ৮ ভারতীয়র মৃত্যুদণ্ড

ইসরায়েলের পক্ষে গুপ্তচরবৃত্তি কাতারে ৮ ভারতীয়র মৃত্যুদণ্ড

ইসরায়েলের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে আট ভারতীয়কে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে কাতারের একটি আদালত। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সবাই ভারতের নৌবাহিনীর সদস্য ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) এই ভারতীয়দের মৃত্যুদণ্ডের রায় দিয়েছেন কাতারের আদালত।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিষয়টি গোপনীয় হওয়ায় এ ব্যাপারে এখনই বিস্তারিত মন্তব্য করবে না বলে জানিয়েছে গণমাধ্যম এনডিটিভি। তবে এই রায়ের বিরুদ্ধে তারা কাজ করবে বলে আশ্বস্ত করেছে।

দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নিজ নাগরিকদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার রায়ে বিষ্ময় প্রকাশ করেছে। যাদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে তার মধ্যে নৌবাহিনীর সাবেক চৌকস কর্মকর্তাও রয়েছেন। যারা এক সময় যুদ্ধজাহাজের নেতৃত্ব দিয়েছেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত এসব ভারতীয়রা দাহরা গ্লোবাল টেকনোলোজিস অ্যান্ড কনসালটেন্সি সার্ভিসের হয়ে কাজ করতেন। বেসরকারি এ প্রতিষ্ঠানটি কাতারের সশস্ত্র বাহিনীকে প্রশিক্ষণ এবং এ সংক্রান্ত সেবা দিত। তারা এ প্রতিষ্ঠানে সাবমেরিনের একটি প্রজেক্টে কাজ করতেন। এই কাজের ফাঁকে ইসরায়েলের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তি করার সময় ধরা পড়েন তারা।

উল্লেখ্য, ২০২২ সালের আগস্ট থেকে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত এসব ভারতীয় জেলে বন্দি ছিলেন। এ বছরের মার্চে তাদের বিরুদ্ধে বিচার শুরু হয়। জেলে বন্দি থাকা অবস্থায় একাধিকবার তাদের জামিনের আবেদন করা হয়। তবে সেগুলো প্রত্যাখ্যান করা হয় এবং তাদের আটক রাখার সময় বৃদ্ধি করা হয়। আজ (২৬ অক্টোবর) এই ভারতীয়দের মৃত্যুদণ্ডের রায় দিয়েছেন আদালত।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন ক্যাপ্টেন নভোতেজ সিং গিল, বিরেন্দ্র কুমার বেরমা, ক্যাপ্টেন সৌরভ বশিষ্ট, কমোডোর অমিত নাগপাল, কমোডোর পুর্নেন্দু তিওয়ারি, কমোডোর সুগুনাকার পাকালা, কমোডোর সঞ্জিব গুপ্ত এবং নাবিক রাগেস। সূত্র: এনডিটিভি

Print Friendly, PDF & Email
আরও পড়ুনঃ  সন্ধান মিললো আমাজনের গহীনে হারিয়ে যাওয়া প্রাচীন শহরের

সংবাদটি শেয়ার করুন