রবিবার, ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

করোনা চিকিৎসায় পাল্টে গেলো শিশুর চোখের রং

করোনা চিকিৎসায় পাল্টে গেলো শিশুর চোখের রং

থাইল্যান্ডে করোনার চিকিৎসার ফলে শিশুর বাদামি চোখ পাল্টে হয়ে গেলো গাঢ় নীল। প্রতিবেদন বলছে, ওই শিশু বেশ কিছু দিন ধরে জ্বর আর সর্দি-কাশিতে ‌ভুগছিল। পরীক্ষার পর জানা যায় সে করোনায় আক্রান্ত। করোনা থেকে শিশুটি দ্রুত সুস্থ করে তুলতে ৩ দিন ধরে ফ্যাভিপিরাভির ওষুধ দিয়ে তার চিকিৎসা করা হয়।

শিশুর মা ওষুধ শুরু হওয়ার ১৮ ঘণ্টার মধ্যেই তার চোখের মণির রঙে পরিবর্তন লক্ষ করেন। গাঢ় বাদামি রং বদলে মণিতে দেখা যায় নীল আভা। চিকিৎসকরা মণির রং পরিবর্তন দেখে ফ্যাভিপিরাভির ওষুধটি বন্ধ করে দেন। ওষুধ বন্ধের ৫ দিনের মধ্যে আবার শিশুর চোখের মণির স্বাভাবিক রং ফিরে আসে।

মেডিকেল রিপোর্টে বলা হয়, মণি ছাড়া ত্বক, নখ, মুখ কিংবা নাকের শ্লেষ্মার রঙে কোনো রকম রং পরিবর্তন লক্ষ করা যায়নি। ফ্যাভিপিরাভির ওষুধটি ৩ দিন চলার পরেই চোখের রঙে বদল লক্ষ করা হয়। সঙ্গে সঙ্গে ফ্যাভিপিরাভির ওষুধটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। ওষুধ বন্ধ করার পর পঞ্চম দিনে চোখের স্বাভাবিক রং ফিরে আসে।

প্রসঙ্গত, ভারতেও ২০২১ সালে এই রকম ঘটনা চোখে পড়ে চিকিৎসকদের। ফ্যাভিপিরাভির ওষুধ দেওয়ার পর ২০ বছর বয়সী করোনা রোগীর কর্নিয়ার রং পরিবর্তন হয়ে যায়। মূলত করোনায় অনেকের শরীরেই বিভিন্ন রকম পরিবর্তন আসতে দেখা যায়। তবে এই পরিবর্তনটি খুবই অল্প কয়েক জনের মধ্যেই দেখা গেছে। কেন এ রকমটা হচ্ছে সেই বিষয়ে সঠিক কোনো তথ্য প্রমাণ নেই। সূত্র: এনডিটিভি

Print Friendly, PDF & Email
আরও পড়ুনঃ  কাপ্তাইের সরকারি কর্মকর্তাদের যেমন কাটবে এবারের ঈদ!

সংবাদটি শেয়ার করুন