সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘প্রতিটি শিশুকে মীনার চোখে স্বপ্ন দেখতে হবে’

'প্রতিটি শিশুকে মীনার চোখে স্বপ্ন দেখতে হবে'

প্রতিটি শিশুকে মীনার চোখে স্বপ্ন দেখতে হবে এবং সে স্বপ্নকে সফল করার জন্য সংকল্পবদ্ধ হতে হবে। মীনা যেভাবে সব প্রতিকূলতা, অজ্ঞতা, অন্ধতা, বৈষম্য, বিভেদের বিরুদ্ধে সজাগ ও সচেতন হয়ে সাহসের সঙ্গে সব বাধা মোকাবিলা করে শিক্ষার পথে এগিয়ে যায়, তেমনি প্রতিটি শিশুকে মীনার মতো আত্মপ্রত্যয়ী হয়ে শিক্ষার আলোয় নিজেকে আলোকিত করতে হবে, কারণ শিক্ষাই মুক্তি। এমনই মন্তব্য করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব ফরিদ আহাম্মদ।

ঢাকা পিটিআই মিলনায়তনে ‘মীনা দিবসের’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে শনিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন তিনি। তিনি বলেন, দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় শানিত মানবিক মূল্যবোধসম্পন্ন এবং প্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করে সমস্যা সমাধানে প্রস্তুত আগামী প্রজন্ম গড়ে তোলার প্রত্যয়ে কাজ করছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন ইউনিসেফের কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ শেলডন ইয়েট। মীনা দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে মেলা, শিশুতোষ মঞ্চ নাটিকা, যাদু প্রদর্শনী, পাপেট শো ও মাপেট শো এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ‘স্মার্ট শিশু স্মার্ট বাংলাদেশ’ ও প্রতিপাদ্য (স্লোগান) ‘স্মার্ট বিদ্যালয় আর স্মার্ট শিক্ষা/সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার দীক্ষা’ মীনা দিবসের এ বছরের প্রতিপাদ্য (থিম) নির্ধারণ কার হয়েছে।

উল্লেখ্য, প্রতিবছর ২৪ সেপ্টেম্বর মীনা দিবস পালন করা হয়। কিন্তু এ বছর ওইদিন রোববার হওয়ায় পাঠদান কার্যক্রম ব্যাহত না করতে ২৩ সেপ্টেম্বর মীনা দিবস উদযাপনের সিদ্ধান্ত হয়।

Print Friendly, PDF & Email
আরও পড়ুনঃ  জবিতে সাংবাদিকতার বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

সংবাদটি শেয়ার করুন