শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মায়ের মৃতদেহ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা কেন্দ্রে মেয়ে

মায়ের মৃতদেহ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা কেন্দ্রে মেয়ে

পিরোজজপুরের ভান্ডারিয়ায় মা শিউলি বেগমের মৃতদেহ বাড়িতে রেখে এইচএসসি পরিক্ষায় অংশগ্রহণ করলো শারমিন আক্তার নামে এক পরিক্ষার্থী। গতকাল রবিবার পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় এইচএসসি পরীক্ষার প্রথম দিনে মাজিদা বেগম মহিলা কলেজের পরীক্ষা কেন্দ্রে এ হৃদয় বিদারক ঘটনাটি ঘটে বলে জানান, ভান্ডারিয়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জহিরুল ইসলাম। এ ঘটনায় পরীক্ষাকেন্দ্রে শোকের ছায়া নেমে আসে।

পরীক্ষার্থী শারমিন আক্তার (১৭) ভান্ডারিয়া উপজেলার ৭নং গৌরীপুর ইউনিয়নের উত্তর পৈকখালী গ্রামে ফারুক ফকিরের কন্যা। তিনি ভান্ডারিয়া সরকারি কলেজের মানবিক বিভাগের মেধাবী শিক্ষার্থী।
মেয়ের চাচা আব্দুল মালেক ফকির জানান, পরীক্ষার্থী শারমিনের মা দীর্ঘদিন ধরে লিভার ও কিডনি রোগে আক্রান্ত ছিল। গতকাল শনিবার দিনগত রাত দ্ইুটা বিশ মিনিটে ঢাকা প্রাইম হসপিটালে মারা যায়। সকালে মৃতদেহ বাড়িতে নিয়ে আসা হয়েছে। মায়ে মৃতদেহ বাড়িতে রেখে এইচএসসি পরিক্ষায় দিচ্ছে শারমিন।

ভান্ডারিয়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জহিরুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি আসলেই দুঃখজনক। সহপাঠী ও পরীক্ষা কেন্দ্র সচিবদের সহযোগিতায় সে পরীক্ষা দেয়। এ ঘটনায় সবাই শোকাভিভূত।
পিরোজপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মাধরী রায় জানান, চলতি বছর উচ্চ মাধ্যমিক, আলিম ও কারিগরি শাখায় মোট ১০ হাজার ৩৭৮ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন।

আনন্দবাজার/শহক

Print Friendly, PDF & Email
আরও পড়ুনঃ  মেহেন্দিগঞ্জে মাথার ওপরে মোবাইল টাওয়ার, ঝুঁকিতে ৭শ শিক্ষার্থী

সংবাদটি শেয়ার করুন