শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সাড়ে ৪ বিলিয়ন ডলার ঋণ দিচ্ছে আইএমএফ

সাড়ে ৪ বিলিয়ন ডলার ঋণ দিচ্ছে আইএমএফ
  • ৭ কিস্তিতে ৪ বছর মেয়াদী ঋণ
  • সুদের হার ২ দশমিক ২ শতাংশ

বাংলাদেশের প্রত্যাশা অনুযায়ী ঋণ দিচ্ছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। চার বছর মেয়াদী ৭ কিস্তিতে সাড়ে ৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বুধবার দুপুর রাজধানী ঢাকার সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বিষয়টি জানিয়েছেন।

মন্ত্রী বলেন, আমরা যেভাবে চেয়েছিলাম, আইএমএফ সেভাবেই ঋণ দিচ্ছে। ঋণ আমরা পেতে যাচ্ছি ইনশাল্লাহ। ঋণের পরিমাণ সাড়ে ৪ বিলিয়ন ডলার। সাত কিস্তিতে ২০২৬ পর্যন্ত ঋণ আসবে। প্রথম কিস্তি আসবে আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে।

বৈশ্বিক ও অভ্যন্তরীণ সংকটের পরিপ্রেক্ষিতে অর্থনীতিতে যে চাপ সৃষ্টি হয়েছে, তা মোকাবিলায় বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন সহযোগী যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ঋণদানকারী সংস্থা আইএমএফের কাছে ৪৫০ কোটি ডলার ঋণ চায় বাংলাদেশ।

এ বিষয়ে চলতি বছরের জুলাইয়ের শেষ দিকে ওয়াশিংটনে আইএমএফের প্রধান কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিক চিঠি পাঠায় বাংলাদেশ সরকার। তারই অংশ হিসেবে ঋণ দেয়ার বিষয়ে আনুষ্ঠানিক আলোচনা করতে আইএমএফের দক্ষিণ এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের প্রধান রাহুল আনন্দের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের প্রতিনিধিদল গত ২৬ অক্টোবর ঢাকায় আসে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলেন, ঋণের টাকা বৈদেশিক লেনদেনের ভারসাম্য, বাজেট সহায়তা ও জলবায়ুর প্রভাব মোকাবিলায় ব্যয় করা হবে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা গাজী তৌহিদুল ইসলামের পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায়, ২ দশমিক ২ শতাংশ সুদে। অর্থাৎ সুদের হার হবে ফ্লাটিং তথা বর্তমান এসডিআর ইন্টারেস্ট রেট অনুযায়ী মোট ঋণের ওপর সুদের হার হবে ২ দশমিক ২ শতাংশ।

আরও পড়ুনঃ  দুই ও পাঁচ টাকার নতুন নোট আসছে আগামীকাল

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে প্রথম কিস্তি ৩৫২ দশমিক ৩৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার পাওয়া যাবে। বাকী ঋণ প্রতি ৬ মাস অন্তর অন্তর ৫১৯ মিলিয়ন এসডিআর হিসেবে ২০২৬ সালের মধ্যে পাওয়া যাবে। মোট ঋণের পরিমাণ হবে ৩ দশমিক ৪৬৮ বিলিয়ন এসডিআর। যা বর্তমান বিনিময় হার অনুযায়ী প্রায় সাড়ে ৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

তিন ধরনের ঋণের মধ্যে রয়েছে ইক্সটেন্ডেড ক্রেডিট ফেসিলিটি-ইসিএফ, ইক্সটেন্ডেড ফান্ড ফেসিলিটি-ইএফএফ, রেসিলেইন্স এন্ড সাসটেইনেবিলিটি ফেসিলিটি-আরএসএফ। ইসিএফে ঋণের পরিমাণ হচ্ছে ৮২২ দশমিক ৮২ মিলিয়ন এসডিআর। এটি সম্পূর্ণ সুদমুক্ত। ইএফএফে ঋণের পরিমাণ হচ্ছে ১৬৪৫ দশমিক ৬৪ মিলিয়ন এসডিআর। এখানে সুদের হার হচ্ছে ফ্লাটিং এসডিআরআই ১ শতাংশ। আরএসএফে ঋণের পরিমাণ হচ্ছে ১ বিলিয়ন এসডিআর। এখানে সুদের হার হচ্ছে ফ্লাটিং এসডিআরআই ০ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

আনন্দবাজার/কআ

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন