শুক্রবার, ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘সাড়া ফেলেনি সুকুক বন্ড’

‘সাড়া ফেলেনি সুকুক বন্ড’

জনগণের কাছে ভালোভাবে তুলে ধরা হয়নি

সালমান এফ রহমান

পাবলিকদের কাছে ভালোভাবে তুলে ধরতে না পারায় বেক্সিমকো গ্রীন সুকুক বন্ডটির তেমন সাড়া পায়নি বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা এবং বেক্সিমকো গ্রুপের ভাইস-চেয়ারম্যান সালমান ফজলুর রহমান। গতকাল বৃহস্পতিবার বেক্সিমকো গ্রীন সুকুক বন্ডের লেনদেনের উদ্বোধনীতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ মন্তব্যে করেন তিনি। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন ডিএসইর চেয়ারম্যান মো. ইউনুসুর রহমান।

সালমান ফজলুর রহমান বলেন, আমি যেখানেই যাই, সেখানেই পুঁজিবাজারের বড় দুটি সমস্যার কথা বলি। এর মধ্যে একটি কাঠামোগত সমস্যা। কারণ আমাদের বাজার শুধুমাত্র ইক্যুইটিভিত্তিক বাজার, বলতে পারেন ডেবট নেই। এটি একটি বড় দুর্বলতা। তবে নতুন কমিশন দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই ডেবট মার্কেটের উন্নয়নে কাজ করছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশে ইক্যুইটি ও ডেবট মার্কেট রেশিও সমান সমান। অনেক দেশে ডেবট মার্কেটে আকার ইক্যুইটির চেয়ে বেশি। তাই আমাদের দেশে ডেবট মার্কেটের আকার বাড়াতে হবে।

পুঁজিবাজারের দ্বিতীয় বড় সমস্যা হিসেবে তিনি বলেন, ম্যাচিউরড বাজারে প্রাতিষ্ঠানিকদের লেনদেনের পরিমাণ বেশি হয় এবং রিটেইলারদের (সাধারণ বিনিয়োগকারী) কম হয়। এমনকি সেখানে রিটেইলাররা ফান্ডের মাধ্যমে লেনদেন করেন। কিন্তু আমাদের দেশে ঠিক উল্টো। এ কারণে দেশের পুঁজিবাজারে উত্থান-পতন হয় বেশি।

এফডিআরের সুদহার এখন ৬ শতাংশ নিচে জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের সুকুক বন্ড থেকে ৯ শতাংশ হারে দেওয়া হবে। একারনে বন্ডটি নিয়ে খুবই আশাবাদি ছিলাম। কিন্তু পাবলিকদের কাছ থেকে সেভাবে সাড়া পাইনি। তবে প্রাতিষ্ঠানিকদের অংশগ্রহন ভালো ছিল। পাবলিকদের সাড়া না পাওয়ার পেছনে সুকুক বন্ডটির বিষয়ে ভালোভাবে তুলে ধরতে না পারা কারণ হিসেবে কাজ করেছে বলে আমার মনে হয়। অথচ এফডিআরওয়ালাদের জন্য সুকুক বন্ডটি খুবই আকর্ষণীয়।

আরও পড়ুনঃ  ইপিএস বেড়েছে ৫৯ ভাগ কোম্পানির

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়্যারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, আজ সুকুক নিয়ে একটা কাজ করলাম, উদ্বোধন করলাম এবং আজকে থেকে এর ট্রেড শুরু হলো। যত বাধাবিপত্তিই থাকুক সামনে আরো নতুন নতুন কাজ করব। আমাদের সামনে ব্লু বন্ড, গ্রীন বন্ড অনেকগুলো চলে আসছে, আমাদের ডেরিভেটিভস নিয়ে কিছু কাজ করছি সেটা চলে আসবে।

আনন্দবাজার/শহক

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন