রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সূচক ডিএসইতে উত্থান, সিএসইতে পতন

ভাটায় লেনদেন

ভাটায় লেনদেন

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) গতকাল রবিবার সব ধরনের সূচক উত্থানে লেনদেন শেষ হয়েছে। তবে অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সব ধরনের সূচক পতনে লেনদেন শেষ হয়েছে। লেনদেন পরিমাণ দুই স্টকে কমেছে। ডিএসইর লেনদেন কমে ১২শ কোটি টাকায় নেমে এসেছে। আর সিএসইর লেনদেন কমে ২২শ কোটি টাকায় নেমে এসেছে। ক্রেতার চেয়ে বিক্রেতার চাপ বেশি।

স্টক এক্সচেঞ্জ সূত্রে জানা যায়, গতকাল রবিবার ডিএসইতে ১ হাজার ২৭৫ কোটি ৩১ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। আগের কার্যদিবস গত বৃহস্পতিবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৫১২ কোটি ৪৪ লাখ টাকার শেয়ার। এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫ দশমিক ১০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৪১৫ দশমিক ৭৭ পয়েন্টে। এছাড়া ডিএসই-৩০ সূচক ৫ দশমিক ৮৪ পয়েন্ট এবং ডিএসইএস সূচক ৪ দশমিক ৪২ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ২ হাজার ২৫৮ দশমিক ৮৩ পয়েন্টে এবং ১ হাজার ৪০৫ দশমিক ৫২ পয়েন্টে।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৬৬টি কোম্পানির মধ্যে শেয়ার ও ইউনিটের দর বেড়েছে ৬২টি এবং কমেছে ৯১টির। শেয়ার পরিবর্তন হয়নি ২১৩টির। এদিন ডিএসইতে বেক্সিমকোর শেয়ার কেনাবেচায় কদর সবচেয়ে বেশি ছিল। ফলে লেনদেন শীর্ষে কোম্পানিটির শেয়ার স্থান পায়। এদিন বেক্সিমকো ১০৪ কোটি ৯২ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়।

লেনদেনের শীর্ষ অবস্থানে থাকা এদিন অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে জেনেক্স ইনফোসিস ৮০ কোটি ৩০ লাখ টাকা, ওরিয়ন ফার্মা ৮০ দশমিক ৩০ লাখ টাকা, নাভানা ফার্মা ৫১ কোটি ১০ লাখ টাকা, ইস্টার্ন হাউজিং ৪৬ কোটি ৫৯ লাখ টাকা, বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন ৪৫ কোটি ৭৩ লাখ টাকা, বসুন্ধরা পেপার ৩৯ কোটি ৭৭ লাখ টাকা, লার্ফাজ-হোল্ডসিম ৩৫ কোটি ৩২ লাখ টাকা, জেএমআই হসপিটাল ২৮ কোটি ৪৫ লাখ টাকা এবং কেডিএস ২৫ কোটি ৫৬ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়।

আরও পড়ুনঃ  গুজবের কারণে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে না পুঁজিবাজার

অপরদিকে, সিএসইতে গতকাল রবিবার লেনদেন হয়েছে ২২ কোটি ৯ লাখ টাকা শেয়ার। আগের কার্যদিবস বৃহস্পতিবার ২৬ কোটি ৩৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল। এদিন সিএসইতে লেনদেন হওয়া ২৩৪টি কোম্পানির মধ্যে শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে ৫৪টি, কমেছে ৭৯টি এবং পরিবর্তন হয়নি ১০১টির। এদিন সিএসইর প্রধান সূচক সিএএসপিআই ২৬ দশমিক ৫১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ৯১৮ দশমিক ৬০ পয়েন্টে। এছাড়া সিএসই-৫০ সূচক ৩ দশমিক শূন্য ৫ পয়েন্ট, সিএসই-৩০ সূচক ১৬ দশমিক ৭৭ পয়েন্ট, সিএসসিএক্স সূচক ১৫ দশমিক ৯৯ পয়েন্ট এবং সিএসআই সূচক দশমিক ৬৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১ হাজার ৩৫০ দশমিক ৬০ পয়েন্টে, ১৩ হাজার ৩৪৯ দশমিক ৪৪ পয়েন্টে, ১১ হাজার ৩৩৮ দশমিক ৭০ পয়েন্টে এবং ১ হাজার ২১৫ দশমিক ৫১ পয়েন্টে।

এদিন সিএসইতে জেনেক্স ইনফোসিসের শেয়ার কেনাবেচায় কদর সবচেয়ে বেশি ছিল। ফলে লেনদেন শীর্ষে কোম্পানিটির শেয়ার স্থান পায়। এদিন জেনেক্স ইনফোসিস ২ কোটি ১৮ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়। লেনদেনের শীর্ষ অবস্থানে থাকা এদিন অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে নাভানা ফার্মা ২ কোটি ১৭ লাখ টাকা, বেক্সিমকো ১ কোটি ৭২ লাখ টাকা, এওএল ৯৫ লাখ টাকা, প্রাইম ইন্স্যুরেন্স ৮৯ লাখ টাকা, লার্ফাজ-হোল্ডসিম ৮১ লাখ টাকা, ওরিয়ন ফার্মা ৭৩ লাখ টাকা, জেএমআই হসপিটাল ৬১ লাখ টাকা, ইউনিক হোটেল ৫৪ লাক টাকা এবং স্কয়ার ফার্মা ৫১ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়।

আনন্দবাজার/শহক

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন