শুক্রবার, ১২ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৮শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লন্ডনে পালিত হলো বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী দিবস

যথাযথ মর্যাদা ও উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে লন্ডনে পালিত হয়েছে বাংলাদেশ হাই কমিশনের প্রতিরক্ষা শাখার উদ্যোগে ৪৮তম বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী দিবস। এ উপলক্ষে যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল আর্মি মিউজিয়ামে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। গত বুধবার লন্ডনের বাংলাদেশ হাইকমিশন থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সশস্ত্র বাহিনীর অনুষ্ঠানস্থলে আমন্ত্রিত অতিথিদের অভ্যর্থনা জানান যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনীম ও লন্ডন মিশনের প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম আমিনুল হক।

অনুষ্ঠানে হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনীম বলেছেন, বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনী দেশ সুরক্ষার পাশাপাশি জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা বাহিনীসহ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বিশেষ ভূমিকা রেখে চলেছে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে আশ্রয় দিয়ে বিশ্বে এক অনন্য নজির স্থাপন করেছেন। এ রোহিঙ্গাদের জন্য রাস্তাঘাট ও বাসস্থান তৈরি, তাদের মধ্যে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ এবং আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় সশস্ত্র বাহিনীর ভূমিকা অপরিসীম।

অনুষ্ঠানে প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা ব্রিগেডিয়ার আমিন বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলার স্বপ্ন বাস্তবায়িত হতে চলেছে ভিশন ২০৪১-এর মাধ্যমে। প্রতিরক্ষা নীতিমালার আলোকে ফোর্সেস গোল ২০৩০ রচিত হয়েছে। এর মাধ্যমে ইতোমধ্যেই নতুন ব্রিগেড, তিনটি পদাতিক ডিভিশন এবং একাধিক নৌ ও বিমান ঘাঁটির সংযোজন হয়েছে। এছাড়াও সংযোজিত হয়েছে বিভিন্ন অত্যাধুনিক অস্ত্র এবং সরঞ্জমাদি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের দক্ষিণ পূর্বে শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর অবদান উল্লেখযোগ্য। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের ভূমিকা সারাবিশ্বে প্রশংসিত।

আরও পড়ুনঃ  উত্তর-পূর্বাঞ্চলে নদ-নদীর পানি বাড়ছে, বন্যার শঙ্কা

অনুষ্ঠানটিতে প্রায় ৪০০জন আমন্ত্রিত অতিথি উপস্থিত ছিলেন।

আনন্দবাজার/টি এস পি

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন