সোমবার, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোষ্ট পরির্দশন করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রতিনিধি দল

মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর হিলি চেকপোষ্ট দিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পাসপোর্টধারী যাত্রী পারাপার স্বাভাবিক করতে ইমিগ্রেশন চেকপোষ্ট পরির্দশন করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল।

আজ বুধবার (১৯ আগস্ট) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা.শাহনীলা ফেরদৌসী নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলটি ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ও জিরো পয়েন্ট এলাকা পরির্দশন করেন।

এছাড়া, পরির্দশনে আসা অন্যান্য সদস্যরা হলেন, আইএইচআর ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. গোলাম মোস্তফা, রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার সহকারী পরিচালক ডা.তাহমিনা আকতার, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সদস্য ডা. মহিউদ্দিন।

চেকপোস্ট পরিদর্শনের সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুর রাফিউল আলম, হাকিমপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন উর রশিদ হারুন, পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত, হাকিমপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৌহিদ হাসান, আরএম নাজমুস সাঈদ, হাকিমপুর থানার অফিসার ইনর্চাজ ফেরদৌস ওয়াহিদ প্রমূখ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা.শাহনীলা ফেরদৌসী সাংবাদিকদের জানান, বিমান বন্দর ও স্থলবন্দর গুলোতে কিছু স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নিয়ম আছে সেটি দেখার জন্যই আজকে হিলি ইমিগ্রেশনে আসা। এই স্থলবন্দর গুলো স্বাস্থ্যবিধি সক্ষমতা বাড়ানো দরকার। যাতে করে পাসপোর্টধারী যাত্রী পারাপারের সময় কোন অসুস্থ ব্যক্তি দেশে আসতে না পারে। যাতে করে এই এলাকার মানুষ তথা দেশের মানুষ ভালো থাকে।

তিনি আরো জানান, আমি সহ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি দল এটা দেখলাম আমরা ঢাকায় গিয়ে উদ্ধর্তন কর্মকর্তার সাথে আলোচনা করে এই বন্দরটিতে একটি স্ক্যানার মেশিন বাসানোর জন্য সুপারিশ করবো।

আরও পড়ুনঃ  এক মাস পর ভিসা সার্ভিস চালু করলো নেপাল

আনন্দবাজার/শাহী/রুবেল

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন