সোমবার, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাইকগাছায় গাভী পালন করে মোহাম্মদ আলীর সফলতা

পাইকগাছায় উন্নত জাতের গাভী পালন করে সফলতা পেয়েছন যুবক মোহাম্মদ আলী গাজী। বর্তমান তার খামার থেকে প্রতিদিন প্রায় দেড়’শ কেজি দুধ উৎপাদন হচ্ছে। মোহাম্মদ আলী পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড গোপালপুর গ্রামের মৃত্যু আমির আলী গাজীর ছেলে।

২ বছর আগে সে লামিয়া ডেইরী ফার্ম নামে উন্নত জাতের গাভী পালন শুরু করে। খামারের জন্য নিজ বসতবাড়ীর সাথে প্রায় ৫ লাখ টাকা ব্যয়ে পাঁকা ঘর নির্মাণ করে। সাড়ে ৩ লাখ টাকা দিয়ে ৩টি গাভী কিনে খামারের যাত্রা শুরু করে। বর্তমান তার খামারে ২৫টি গাভী রয়েছে। যার মধ্যে ১২টি দুধ দেয় এবং বাকী গুলো প্রজনন সম্পন্ন গাভী।

গাভী পালনের জন্য সে সাড়ে ৩ বিঘা জমিতে উন্নত জাতের ঘাসের চাষ করেছেন। গাভীগুলো থেকে সে সকাল এবং বিকালে দুধ সংগ্রহ করে। বর্তমান প্রতিদিন প্রায় দেড়’শ কেজি দুধ উৎপাদন হচ্ছে। উৎপাদিত দুধের বেশিরভাগ আকিজ কোম্পানির দুগ্ধ প্রক্রিয়াজাত কেন্দ্রে বিক্রয় করে থাকে। খামারটিতে নিজ এবং নিজের পরিবার সার্বক্ষনিক শ্রম দিয়ে থাকেন। এর পাশাপাশি ৩জন শ্রমিক রয়েছে যারা বেতনভুক্ত কর্মচারী হিসাবে কাজ করে।

উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিস থেকে খামারটির জন্য ঔষধ এবং ঘাসের বীজ সরবরাহ করে থাকেন। গাভী পালন করে সফলতা পেলেও রয়েছে নানান সমস্যা। এ ব্যাপারে মোহাম্মদ আলী জানান, গাভী পালনে বেকারত্ব দূরীকরণ সহ অনেক লাভ জনক একটি পেশা। তবে খামারটির পরিসর বাড়ানোর জন্য ব্যাংক ঋণ অত্যন্ত জরুরী। এ ধরণের ঋণ সহায়তা পেলে আগামীতে আরো বড় করে খামারটি করতে চাই। উৎপাদিত দুধ বিক্রয় নিয়েও অনেক সমস্যা রয়েছে। নিকটস্ত কোন প্রক্রিয়াজাত কেন্দ্র নাই। ফলে অনেকটা পথ পাড়ি দিয়ে দুধ বিক্রি করতে যেতে হয়। দুধের চেয়েও গো-খাদ্যর দাম অনেক বেশি। এসব সমস্যা সমাধান হলে গাভী পালন অনেক লাভজনক হবে।

আরও পড়ুনঃ  গরুর খামারে স্বপ্নপূরণ তিন বন্ধুর

আনন্দবাজার/শাহী/ইমদাদ

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন