মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এনবিআরকে দু’ভাগ করার প্রস্তাব

দেশের কাঠামোগত অগ্রগতির সাথে সাথে দেশের অর্থনীতিও বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাড়ছে বাজেটের আকার। আর বড় ব্যয়-চাহিদার বেশিরভাগ অর্থের জোগান আসছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) থেকে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে ভেঙে দু’ভাগ করার প্রস্তাব করেছে পরিকল্পনা কমিশন।

এনবিআরের সাবেক চেয়ারম্যানরা মনে করছেন, পরিকল্পনা কমিশনের এমন প্রস্তাব বাস্তবায়ন করা গেলে রাজস্ব আহরণে গতি আসবে। এছাড়া বিভাগ দুটিতে থাকবেন আলাদা চেয়ারম্যান। আর বিষয়টি ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন অর্থনীতিবিদ ও ব্যবসায়ী নেতারা। এদিকে ২০৪১ সালের মধ্যে কর-জিডিপি অনুপাত ২৪ দশমিক ১৫ শতাংশে উন্নীত করতে চায় সরকার।

এ লক্ষ্য পূরণে এনবিআরে বড় সংস্কারের প্রয়োজনীয়তা দেখছে পরিকল্পনা কমিশন। তাই বিদ্যমান কাঠামো ভেঙে আলাদা দুটি বিভাগ করার পরামর্শ সংস্থাটির।

এনবিআরের সাবেক চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ আব্দুল মজিদ বলেন, একই লোক প্রত্যক্ষ কর দেখছে আবার পরোক্ষ করও দেখছে। একই লোক নীতিও তৈরি করছে আর বাস্তবায়ন করছে। এখানেই একটা বিভাজন প্রয়োজন।

আর ব্যবসায়ী নেতারাও বলছেন, রাজস্ব বিভাগে বড় ধরনের সংস্কার এখন সময়ের দাবি।

ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সাবেক সভাপতি আবুল কাশেম খান বলেন, আমাদের দেশের ট্যাক্স-জিডিটিপি যেখানে বিশ্বের মধ্যে সর্বনিম্ন, সেখানে যদি এই পরিবর্তনটা আনতে পারি এটা একটা বড় পরিবর্তন হবে। এটা বড় রিফর্ম হবে এবং আমার বিশ্বাস এটা অনেক বেশি এ্যাফেক্টেট হবে।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে দুই ভাগ করার উদ্যোগ ইতিবাচক। তবে পরিকল্পনাটি বাস্তবায়ন বেশ চ্যালেঞ্জিং বলে মত অর্থনীতিবিদদের।

তবে চ্যালেঞ্জিং হলেও সরকারের সদিচ্ছা থাকলে এ ধরনের বড় পরিকল্পনা বাস্তবায়ন কঠিন নয় বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা।

আরও পড়ুনঃ  রাজস্ব আদায় কমেনি বরং বেড়েছে : অর্থমন্ত্রী

আনন্দবাজার/ইউএসএস

Print Friendly, PDF & Email

সংবাদটি শেয়ার করুন