সৌদি যুবরাজকে নিষেধাজ্ঞা দিতে যুক্তরাষ্ট্রকে জাতিসংঘের আহবান

সৌদি আরবে ভিন্ন মতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যা করার নির্দেশ দেওয়ার অপরাধে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহবান জানিয়েছেন জাতিসংঘের বিশেষ প্রতিনিধি অ্যাগনেস ক্যালামার্ড।

এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউজকে উদ্দেশ্য তিনি বলেন, বিন সালমানের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করার পাশাপাশি তার আন্তর্জাতিক বাণিজ্যিক লেনদেনের ওপরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, যারা খাশোগিকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছে তাদের আন্তর্জাতিক সমাজ থেকে একঘরে করে রাখতে পারলে, একই ধরনের অপরাধ করার কথা যারা চিন্তা করে, তারা শিক্ষা পেয়ে যাবে। খাশোগি হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে পুঙ্খানুপুঙ্খ গোয়েন্দা প্রতিবেদন প্রকাশ করে দেওয়ার জন্যও মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রতি আহবান জানান জাতিসংঘের এই বিশেষ প্রতিনিধি।

সদ্য প্রকাশিত মার্কিন গোয়েন্দা প্রতিবেদনে জানা যায়, সৌদি আরবের ক্ষমতাধর যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমান ব্যক্তিগতভাবে সেদেশের ভিন্ন মতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যা করার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

এর আগে ২০১৮ সালে তৈরি করা মার্কিন সরকারের গোয়েন্দা প্রতিবেদনটি সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ধামাচাপা দিয়ে রাখলেও বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তা প্রকাশ করে দিয়েছেন। প্রতিবেদনে বলা হয়, মোহাম্মাদ বিন সালমান এমন একটি পরিকল্পনা অনুমোদন করেছিলেন, যাতে সৌদি নিরাপত্তা বাহিনীকে এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল যে, খাশোগিকে ‘ধরে আনতে অথবা হত্যা করতে’ হবে।

এই প্রথমবারের মতো মার্কিন সরকার খাশোগিকে হত্যার জন্য সরাসরি সৌদি যুবরাজকে দায়ী করেছে। তবে বাইডেন প্রশাসন জানিয়ে দিয়েছে, তারা খুনি বিন সালমানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করবে না।

আনন্দবাজার/টি এস পি

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *