সেবা খাতের ফি বিদেশে পাঠাতে লাগবে না অনুমোদন

সেবা খাতের ফি বিদেশে পাঠাতে এখন থেকে আর লাগবে না কোন অনুমোদন। চলতি হিসাবের অন্তর্ভুক্ত সেবা খাতের ব্যয় বিদেশে পাঠানো সহজ করতে এই উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। গতকাল বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগ থেকে এসংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করা হয়েছে।

এর আগে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন ছাড়া শুধু প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ ফি বাবদ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বার্ষিক মোট বিক্রয়ের ১ শতাংশ অর্থ বিদেশে পাঠানো যেত। এ দুটি খাতের পাশাপাশি এখন থেকে অন্যান্য সেবা ব্যয় যেমন নিরীক্ষা, সার্টিফিকেশন, কমিশনিং, টেস্টিং প্রভৃতি ফিও বিদেশে পাঠাতে বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন লাগবে না। তবে এক্ষেত্রেও সব খাত মিলিয়ে অর্থ পাঠানোর পরিমাণ সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বার্ষিক বিক্রয়ের ১ শতাংশের বেশি হতে পারবে না।

সার্কুলারে বলা হয়েছে, প্রচলিত ব্যবস্থায় প্রশিক্ষণ এবং পরামর্শ ফি সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের পূর্ববর্তী বছরের আয়কর বিবরণীতে ঘোষিত বিক্রয়ের ১ শতাংশ অর্থ বিদেশে প্রেরণযোগ্য। আলোচ্য প্রাধিকারের আওতায় এখন থেকে অন্যান্য সেবা ব্যয় যেমন নিরীক্ষা, সার্টিফিকেশন, কমিশনিং, টেস্টিং প্রভৃতি ফি বাবদ নির্বাহ করা যাবে। এ সুবিধা ইজেডের প্রতিষ্ঠান, যারা স্থনীয় বাজারে পণ্য টাকায় বিক্রি করে তাদের জন্যও প্রযোজ্য হবে। তবে রয়ালটি, টেকনিক্যাল নলেজ, অ্যাসিস্ট্যান্ট ফি, ফ্রাঞ্চাইজি ফি পরিশোধের ক্ষেত্রে বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) অনুমোদন এবং অন্য ক্ষেত্রে কোনো কর্তৃপক্ষের অনুমোদনের আবশ্যকতা থাকলে তা গ্রহণ করতে হবে।

একই বিভাগ থেকে আরেকটি সার্কুলারের মাধ্যমে সফটওয়্যার রক্ষণাবেক্ষণ ফি বাবদ অর্থ প্রেরণের ক্ষেত্রে অনুমোদিত ডিলার ব্যাংকগুলোকে প্রাধিকার দেওয়া হয়েছে। এই প্রথমবার বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন গ্রহণের আবশ্যকতা প্রত্যাহার করে এই প্রাধিকার দেওয়া হয়েছে।

আনন্দবাজার/ডব্লিউ এস

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *