মস্কোতে গণমৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬১ বছর পালন

মস্কোতে গণমৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬১ বছর পালন

রাশিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রিয় ক্যাম্পাস গণমৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয় ৬১ বছরে পা দিয়েছে। আনন্দময় এমন সময়কে মনে রেখে দিতেই আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন অ্যাসোসিয়েশন অব গ্রাজুয়েটস অ্যান্ড ফ্রেন্ডস পিপলসের ‘কাউন্সিল চেয়ারম্যান’ আলমগীর জলিল। আয়োজনে সহযোগী সংগঠন ‘সাব অ্যান্ড ফ্রেন্ডস অব রাশিয়া’।

প্রাণবন্ত এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাশিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এইচ ই কামরুল আহসান, রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অ্যান্ড্রে এ স্টারকোভ, বিজ্ঞান ও উচ্চশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ভাসিনা দারিয়া আলেকসীভনা, রাশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের মিশন উপ-প্রধান (মিনিস্টার) ও দূতালয় প্রধান আন্দ্রিয় দ্রং, গণমৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রোমেরো ব্যারেনিয়া মোসেস এসাউ, ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্সের ভাইস-রেক্টর এফরেমোভা লারিসা ইভানোভনা প্রমুখ।

মস্কোতে গণমৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬১ বছর পালন

আলমগীর জলিল বলেন, বিদেশিদের জন্য রাশিয়ায় উচ্চশিক্ষা লাভের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। রাশিয়ার উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতিটির আছে নিজস্ব ইতিহাস, ঐতিহ্য ও বিশেষত্ব। রাশিয়ায় এবং বহির্বিশ্বে গণমৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি আলাদা ভাবমূর্তি রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিকমানের শিক্ষার পরিবেশ এবং শিক্ষার্থীদের একে অপরের মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক তাদের ভবিষ্যৎ জীবনকে আরও প্রশস্ত করে গড়ে তুলতে সাহায্য করে।

অনুষ্ঠানে আগত অতিথিরা গণমৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতি উষ্ণ আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান। এছাড়া রাশিয়া-বাংলাদেশের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। গণমৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্মদিনের পাশাপাশি অ্যাসোসিয়েশনের প্রথম বছর উদযাপনের জন্যই এই আয়োজন করা হয়।

আনন্দবাজার/শহক

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *