ডিসেম্বর ১, ২০২১

বেক্সিমকো সিনথেটিকসের লেনদেন বন্ধের মেয়াদ বাড়লো

বেক্সিমকো সিনথেটিকসের লেনদেন বন্ধের মেয়াদ বাড়লো

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বেক্সিমকো সিনথেটিকসের শেয়ার লেনদেন বন্ধের মেয়াদ আরেক এক দফা বাড়ানো হয়েছে। এনিয়ে ২৯ দফা সময় বাড়িয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সূত্রমতে, ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদ বেক্সিমকো সিনথেটিকসের শেয়ার লেনদেন আরও ১৫ দিন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ হিসেবে ১৭ নভেম্বর থেকে ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন বন্ধ থাকবে।

এর আগে ২৮ দফা কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন বন্ধের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছিল। এর মধ্যে প্রথম দফায় গত বছরের ৭ সেপ্টেম্বর থেকে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত, দ্বিতীয় দফায় ২২ সেপ্টেম্বর থেকে ৭ অক্টোবর পর্যন্ত, তৃতীয় দফায় ৮ অক্টোবর থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত, চতুর্থ দফায় ২৩ অক্টোবর থেকে ২১ নভেম্বর পর্যন্ত, পঞ্চম দফায় ২২ নভেম্বর থেকে ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত, ষষ্ঠ দফায় ৭ ডিসেম্বর থেকে ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত, সপ্তম দফায় ২২ ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত লেনদেন বন্ধ ছিল।

এরপর অষ্টম দফায় ৬ জানুয়ারি থেকে ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত, নবম দফায় ২১ জানুয়ারি থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত, দশম দফায় ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৯ ফেব্রুয়ারি, ১১তম দফায় ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে ৬ মার্চ পর্যন্ত, ১২তম দফায় ৭ মার্চ থেকে ২১ মার্চ পর্যন্ত, ১৩তম দফায় ২২ মার্চ থেকে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত, ১৪তম দফায় ৬ এপ্রিল থেকে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত, ১৫তম দফায় ২১ এপ্রিল থেকে ৫ মে পর্যন্ত, ১৬তম দফায় ৬ মে থেকে ২০ মে পর্যন্ত, ১৭তম দফায় ২১ মে থেকে ৪ জুন পর্যন্ত, ১৮তম দফায় ৫ জুন থেকে ১৯ জুন পর্যন্ত, ১৯তম দফায় ২০ জুন থেকে ৪ জুলাই পর্যন্ত, ২০ দফায় ৫ জুলাই থেকে ১৯ জুলাই পর্যন্ত বন্ধ থাকে।

আরও পড়ুনঃ  সূচকের সঙ্গে লেনদেনেরও পতন

এরপর ২১তম দফায় ২০ জুলাই থেকে ৩ আগস্ট পর্যন্ত, ২২ দফায় ৪ আগস্ট থেকে ১৮ আগস্ট পর্যন্ত, ২৩ দফায় ১৯ আগস্ট থেকে ২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত, ২৪তম দফায় ৩ সেপ্টেম্বর থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত, ২৫তম দফায় ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত,২৬তম দফায় ৩ অক্টোবর থেকে ১৭ অক্টোবর পর্যন্ত, ২৭তম দফায় ১৮ অক্টোবর থেকে ১ নভেম্বর পর্যন্ত এবং ২৮তম দফায় ২ নভেম্বর থেকে ১৬ নভেম্বর পর্যন্ত কোম্পানিটির লেনদেন বন্ধ ছিল।

কোম্পানি সূত্রমতে, সবশেষ কোম্পানিটির চলতি অর্থবছরের প্রথম তিন মাস বা প্রথম প্রান্তিক (জুলাই টু সেপ্টেম্বর) শেয়ার প্রতি লোকসান হয়েছে দশমিক ৪৭ টাকা। যার আগের অর্থবছরের একই সময়ে লোকসান ছিল দশমিক ৮৫ টাকা। ২০২১ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে নেগেটিভ ৩ দশমিক ২৫ টাকায়। গত বছরের ৬ সেপ্টেম্বর কোম্পানিটির শেয়ার দর ছিল ৮ দশমিক ৪০ টাকা। এরপর থেকে পুঁজিবাজারে কোম্পানির লেনদেন বন্ধ রয়েছে।

ডিএসইর ওয়েবসাইট সূত্রমতে, ১৯৯৩ সালে পুঁজিবাজারে আসা ‘জেড ক্যাটাগরির’ বেক্সিমকো সিনথেটিক্সের অনুমোদিত মূলধন ২০০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ৮৬ কোটি ৭১ লাখ ২০ টাকা। শেয়ার সংখ্যা ৮ কোটি ৬৭ লাখ ১২ হাজার ৩৫৯ শেয়ার। কোম্পানিটির রিজার্ভ নেভেটিভ ৯৮ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। কোম্পানির মোট শেয়ারের ৩৫ দশমিক ৬৭ শতাংশ মালিকানা রয়েছে উদ্যোক্তা পরিচালকদের। এছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ২৪ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ, বিদেশি বিনিয়োগ দশমিক শূন্য ২ ও বাকি ৪০ দশমিক ২২ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে।

আরও পড়ুনঃ  সূচকের উত্থানে চলছে লেনদেন

আনন্দবাজার/এজে

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আজকের পত্রিকা
ই-পেপার
শেয়ার বাজার
পন্য বাজার