জানুয়ারি ২৯, ২০২৩

ফোনের অ্যাপই ডাক্তারের কাজ করছে!

মোবাইল ফোনের অ্যাপ আজকাল প্রায় সব সমস্যারই সমাধান করে দিচ্ছে৷ এমনকি অ্যাপের মাধ্যমে রোগ নির্ণয়ের কাজও চলছে৷ ভবিষ্যতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা এ ক্ষেত্রে অভাবনীয় অবদান রাখতে পারে৷

ধরুন আপনি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন৷ রোগের উপসর্গগুলি মোবাইল ফোনের অ্যাপে লিখে দিলেই চলবে৷ তখন এক যন্ত্র রক্তমাংসের ডাক্তারের মতো আপনার সঙ্গে সে বিষয়ে আলোচনা করবে৷ প্রায় ২০টি প্রশ্নের উত্তর পেলে যন্ত্রটি সম্ভাব্য রোগ নির্ণয় করে দেবে৷ এমন এক অ্যাপ কি চিকিৎসাবিদ্যার ক্ষেত্রে বিপ্লব আনার ক্ষমতা রাখে?

এডিএ হেলথ কোম্পানির সহ প্রতিষ্ঠাতা ডানিয়েল নাটরাট এ বিষয়ে তাঁর মূল্যায়ন জানালেন৷ তাঁর মতে, ‘‘আমার মনে হয়, ডাক্তারের ভূমিকা অবশ্যই কিছুটা বদলে যাবে৷ গত আট বছরে অনেক ডাক্তারের সঙ্গে কথা বলে, তাদের সঙ্গে কাজ করে আমার কিছু অভিজ্ঞতা হয়েছে৷ আমার মতে, সেরা ডাক্তাররা তাঁরাই, যাঁরা প্রযুক্তির সাহায্য নিয়ে আরও ভালো ডাক্তার হয়ে উঠতে চান৷”

জোরালো উদ্যোগের সুফল

প্রায় আট বছর ধরে ডাক্তার ও প্রোগ্রামাররা মিলে এই অ্যাপ সৃষ্টি করেছেন৷ হাজার হাজার গবেষণার ফলাফল বিশ্লেষণ করেছেন তাঁরা৷ কোম্পানির মেডিক্যাল কনটেন্ট বিভাগের প্রধান এভেলিনা ট্যুর্ক বলেন, ‘‘এডিএ অ্যাপ উপসর্গ বিশ্লেষণ করে যে ফলাফল বাতলে দেয়, এখানে আমরা সেটাই দেখছি৷ বাম দিকে উপসর্গের তালিকা, তাতে ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ বেছে নেওয়া হয়েছে৷ ডানদিকে সম্ভাব্য রোগগুলির উল্লেখ রয়েছে৷ কোনো উপসর্গের ক্ষেত্রে ‘হ্যাঁ’ বেছে নিলে সবুজ রেখা দেখা যায় এবং সেটি কোনো একটি রোগের পক্ষে যুক্তির মাত্রা ইঙ্গিত করে৷ উপসর্গ না থাকলে লাল রেখা দেখা যায় এবং কোন রোগ নেই, তা ইঙ্গিত করে৷”

আরও পড়ুনঃ  অ্যানিমেশন ফিচার চালু করলো ফেসবুক

গোটা বিশ্বে এই অ্যাপ ব্যবহার করা হয়৷ বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই রোগ ঠিকমতো নির্ণয় করা সম্ভব হয়৷ এ ক্ষেত্রে রক্তমাংসের ডাক্তারের সাফল্যের হারও প্রায় একই রকম৷ সাফল্যের হার আরও বাড়াতে অ্যাপ সৃষ্টিকারীরা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রয়োগ করছেন৷ এভেলিনা ট্যুর্ক মনে করেন, ‘‘সেল্ফ লার্নিং প্রক্রিয়ার মূলমন্ত্র হলো, এই অ্যাপ রোগ নির্ণয় করার পর ইউজার সেই ফলাফলের সঙ্গে একমত হলে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স তা থেকে শিক্ষা নিতে পারে৷ এই প্রক্রিয়া স্বয়ংক্রিয়ভাবে ঘটুক, আমরা কিন্তু তা চাই না৷ ডাক্তাররা সব সময়ে সেই সিদ্ধান্ত নেন৷ ইউজার ভুল বক্তব্য রেখে প্রক্রিয়াটি যাতে প্রভাবিত করতে না পারে, এভাবে আমরা তা নিশ্চিত করি৷”

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ই-পেপার
প্রথম পাতা
খবর
অর্থ-বাণিজ্য
শেয়ার বাজার
মতামত
বিশ্ব বাণিজ্য
ক্যারিয়ার
খেলার মাঠ
প্রযুক্তি বাজার
শিল্পাঞ্চল
পণ্যবাজার
সারাদেশ
শেষ পাতা