প্রয়োজনের চেয়ে বেশি পানি পানের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

Portrait of happy african american woman drinking mineral water from plastic bottle. Thirsty black girl with drink container in summer.

পানির অপর নাম জীবন। সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে পানির প্রয়োজন আছে, তবে অতিরিক্ত পানি পানের ফলে মারাত্মক স্বাস্থ্যগত জটিলতা দেখা দিতে পারে।

যে কারণে শরীরের জন্য পানি প্রয়োজনীয় :

পানি দেহের কোষের পুষ্টি বহন করে, বিষাক্ত পদার্থ সরিয়ে দেয়, তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে এবং খনিজ, ভিটামিন, অ্যামিনো অ্যাসিড, গ্লুকোজ অন্তর্ভুক্ত করে।

যতটুকু পানি পান করলে বেশি বলা যায় :

এটি বিদ্যমান স্বাস্থ্যের অবস্থা, বয়স এবং জীবনযাত্রার অভ্যাসের মতো বিভিন্ন কারণের উপর নির্ভর করে। ব্যাক্তিভেদে পানির প্রয়োজনীয়তা ভিন্ন ভিন্ন হয়।

কিডনি যতটা পানি পানি ছাড়তে পারে :

কিডনি এক ঘন্টায় প্রায় ১ লিটার পানি নিঃসরণ করতে পারে। অতিরিক্ত পানি খেলে ‍কিডনি তা অপসারণ করতে পারবে না।

কম সময়ের মধ্যে ৩-৪ লিটার পানি পান করলে হাইপোনাট্রেমিয়া হতে পারে। এটি এমন একটি সমস্যা যা শরীরের সোডয়ামের ঘনত্ব হ্রাস করে। আবার খুব বেশি পরিমাণে পানি পানের ফলে পানির নেশা হতে পারে। যা শরীরে সোডিয়ামের মাত্রা কমিয়ে দেয়।

সোডিয়ামের ঘনত্ব কমে গেলে যা ঘটে :

সোডিয়াম ছাড়া কোষের মধ্যে তরল ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণ করতে গেলে মস্তিষ্ক ফুলে যায়। এতে কোমায় চলে যাওয়া এমনকি মৃত্যুও ঘটতে পারে।

এক দিনে যতটুকু পানি পান করতে হবে :

চিকিৎসকরা বলেন, পূর্ণবয়স্ক ব্যাক্তিদের শরীরের অভ্যন্তরীণ সিস্টেম স্বাভাবিক রাখার জন্য ২৪ ঘন্টায় ২-৩ লিটার পানি পান করায় যথেষ্ট।

আনন্দবাজার/টি এস পি

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *