নির্ধারণ করা হচ্ছে এলপিজির দাম

নির্ধারণ করা হচ্ছে এলপিজির দাম

অবশেষে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাসের (এলপিজি) দাম নির্ধারণে গণশুনানি কর‍তে যাচ্ছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন। আগামী ১৪ জানুয়ারি বিয়াম ফাউন্ডেশনের শহীদ একেএম শামসুল হক খান মেমোরিয়াল হলে শুরু হতে যাচ্ছে এই শুনানি। একদিনে যদি আলোচনা শেষ করা না যায় তাহলে আরও দুই দিন, অর্থাৎ ১৭ এবং ১৮ জানুয়ারিও রাখা হয়েছে শুনানির তারিখ।

কমিশন চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল বলেন, আমরা অনেক আগে থেকেই চেষ্টা করছিলাম এলপিজির দাম নির্ধারণ নিয়ে কাজ করতে। কিছু কিছু কাজও করা হচ্ছিল। এলপিজির মালিকদের সংগঠনের সঙ্গে আমরা সভাও করেছিলাম। কিন্তু নানা জটিলতায় এগোতে পারছিলাম না।

তিনি আরও বলেন, অনেকদিন ধরেই কমিশনের কাছে অভিযোগ আসছিল নানা এলাকায় এলপিজির নানা দাম নেওয়া, বেশি দাম রাখা, একেক কোম্পানির একেক দাম রাখা হচ্ছে। আশা করছি এর মাধ্যমে সব সমস্যার সমাধান হবে। আমরা চেষ্টা করবো সবার ন্যায্যতার ভিত্তিতে দাম নির্ধারণ করতে।

ভোক্তা অধিকার সংগঠন কনজুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) জ্বালানি উপদেষ্টা শামসুল আলম বলেন, বিইআরসি আইন ২০০৩ অকেজো হয়ে গিয়েছিল। এর মধ্য দিয়ে আইনটি আবার প্রতিষ্ঠিত হলো। আইন প্রয়োগের ক্ষেত্রে কমিশনকে আরও শক্তিশালী ভূমিকা নিতে হবে।

কমিশন জানায়, ১৪ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে এই শুনানি। শুনানির পর আগামী ২৪ জানুয়ারি লাইসেন্সি ও স্বার্থসংশ্লিষ্টদের সঙ্গে শুনানি পরবর্তীতে লিখিত মতামত প্রদান করা যাবে বলে তারা জানিয়েছেন।

আনন্দবাজার/শহক

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *