নভেম্বর ২৮, ২০২১

তুলার দাম বাড়ায় লেপ-তোষক বিক্রি কমার আশঙ্কা

লক্ষীপুরের  রায়পুরে শুরু হয়েছে শীতের আমেজ। ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা। দিনের বেলায় শীত তেমন একটা অনুভূত না হলেও রাতের বেলায় ঠিকই প্রভাব খাটাচ্ছে। আর এ শীতকে সামনে রেখে রায়পুরে আড়াই শতাধিক লেপ-তোষক তৈরির কারিগর ব্যস্ত সময় পার করছেন। তবে তুলার দাম বেড়ে যাওয়ায় বিক্রি কমার আশঙ্কা করছেন তারা।

রায়পুর শহর, হায়দারগঞ্জ, খাসেরহাট, কেম্পেরহাট, সুনামগঞ্জ, বাসাবাড়ি, রাখালিয়া ও মিতালী বাজারে প্রতিটি দোকানেই ব্যস্ত সময় পার করছেন লেপ-তোষক কারিগররা। তারা ক্রেতাদের কাছ থেকে অগ্রীম টাকা নিয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন লেপ-তোষক তৈরির কাজ। এর বাইরে অতিরিক্ত লেপ-তোষক তৈরি করে রাখতে চান তারা। কারণ শীত বাড়লেই বেড়ে যাবে এর চাহিদা। ইতোমধ্যে প্রায় দোকানেই ক্রেতাদের আনাগোনা বেড়েছে।

এদিকে গেল বছরের তুলনায় এ বছর সব ধরনের তুলার দাম বেড়েছে। বাজারে প্রতিকেজি কারপাস তুলা ১৫০ থেকে ১৮০টাকা, বেজার তুলা ৯৫ থেকে ১০০, শিমুল তুলা ২৩০ থেকে ২৬০, গার্মেন্টস তুলা ৭০ থেকে ৭৫, ফোম তুলা ৮৫ থেকে ১০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

আরও পড়ুন:পাবর্তীপুরে ২৩ শতাংশ বাল্যবিয়ে

রায়পুর বাজারের লেপ-তোষক বিক্রেতা বিলাস বেডিং স্টোরের নাছির উদ্দিন ও মেহেদী হাসান বেডিং স্টোরের মালিক জামাল হোসেন (ভুট্টো) জানান, মোকামে সব ধরনের তুলার দাম বেড়ে যাওয়ায় তাদের দাম বাড়াতে হয়েছে। এছাড়াও লেপ-তোষক তৈরির কারিগররা এ মৌসুমে তাদের পারিশ্রমিক তুলানামূলক বেশি নেয়ায় এ বছর লেপ-তোষক তৈরিতে ক্রেতাকে গত বছরের তুলনায় বেশি টাকা গুণতে হচ্ছে। আকার বেধে প্রতি পিস লেপ ১ হাজার ৩শ‘ টাকা থেকে ১ হাজার ৮শ’ টাকা এবং তোষক ১ হাজার ৫শ’ থেকে ২ হাজার ২শ’ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।

বাজার/এম.আর

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আজকের পত্রিকা
ই-পেপার
শেয়ার বাজার
পন্য বাজার