ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২৩

চালের দাম বস্তা প্রতি বেড়েছে ২০০ টাকা

এক সপ্তাহের ব্যবধানে উত্তরাঞ্চলের ধান-চালের সবচেয়ে বড় মোকাম নওগাঁয় চিকন চালের দাম প্রতি কেজিতে ৪ থেকে ৫ টাকা বেড়েছে। আর বস্তাপ্রতি (৫০ কেজি) বেড়েছে প্রায় ২০০ টাকা। বাজারে জিরাশাইল ও বিরি-২৮ জাতের ধানের সরবরাহ কমায় চালের দাম বেড়েছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

চালকল মালিকরা বলছেন, ধানের দামের সঙ্গে চালের বাজারের সামঞ্জস্য না থাকায় লোকসান গুনতে হচ্ছে। বেশি দামে ধান কিনে কম দামে চাল বিক্রি করতে হচ্ছে। যে হারে ধানের দাম বেড়েছে, সে তুলনায় চালের দাম বাড়েনি। চিকন চালের দাম ৫০ টাকার মধ্যে থাকলে কৃষকরা ধানের দাম পাবেন বলে মনে করছেন তারা।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন নওগাঁয় মোট ৯৫৭টি চালকল রয়েছে। এর মধ্যে ৫২টি অটোরাইস মিল, বাকিগুলো হাসকিং মিল। প্রতিদিন মিলগুলোর চাল উৎপাদন ক্ষমতা প্রায় দেড় হাজার মেট্রিক টন।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, গত বোরো মৌসুমে নওগাঁয় প্রায় ১ লাখ ৯১ হাজার হেক্টর জমিতে ইরি-বোরো ধানের আবাদ করা হয়েছিল। স্থানীয় চাহিদা প্রায় ৪ লাখ মেট্রিক টন।

গত সপ্তাহে চিকন চালের দাম ৩৬ টাকা থাকলেও এক সপ্তাহের ব্যবধানে কেজিতে বেড়েছে ৪ থেকে ৫ টাকা। ফলে বিপাকে পড়েছেন ক্রেতারা। আগামীতে এই দাম আরও বাড়ার সম্ভবনা রয়েছে।

খুচরা চাল ব্যবসায়ী মহাদেব ঘোষ বলেন, গত এক সপ্তাহ আগে জিরাশাইল বিক্রি হয়েছে প্রতিকেজি ৩৬ টাকা। এখন বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা। আটাস ২/৩ টাকা বেড়ে ৩৪/৩৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া স্বর্ণা ৩০ টাকা, কাটারিভোগ ৫০/৫২ টাকা, পাইজাম ৫০/৫২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। প্রকার ভেদে মোটা চালের দামও কেজিতে ২ টাকা বেড়েছে।

আরও পড়ুনঃ  খেজুর গুড় তৈরিতে ব্যস্ত গাছিরা

নওগাঁ জেলা চাল কল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ হোসেন চকদার বলেন, সরকার ২৬ টাকা দরে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ৬ লাখ মেট্রিক টন ধান সংগ্রহ করবে। এছাড়া ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ৩৬ টাকা কেজি দরে সাড়ে তিন লাখ মেট্রিক টন সিদ্ধ চাল ও ৩৫ টাকা কেজি দরে ৫০ হাজার মেট্রিক টন আতপ চাল সংগ্রহ করবে। যা একটি নজিরবিহীন ঘটনা। যা আগে কখনোই করেনি।

কৃষকদের ধানের ন্যায্য দাম দিতে এবং ব্যবসায়ীদের স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সরকার পর্যায়ক্রমে উদ্যোগ নিয়েছে। যার কারণে ধান ও চালের দাম বেড়েছে। আমন ধান কাটা-মাড়াই শুরু হলেও তা বাজারে আসতে আরও এক সপ্তাহ লাগতে পারে।

 

 

আনন্দবাজার/ইউএসএস

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ই-পেপার
প্রথম পাতা
খবর
অর্থ-বাণিজ্য
শেয়ার বাজার
মতামত
বিশ্ব বাণিজ্য
ক্যারিয়ার
খেলার মাঠ
প্রযুক্তি বাজার
শিল্পাঞ্চল
পণ্যবাজার
সারাদেশ
শেষ পাতা