‘কারিগরি সক্ষমতা বাড়াতে চীন পাশে থাকবে’

বাণিজ্য খাতকে শক্তিশালী করতে ভবিষ্যতেও কারিগরি সহযোগিতা ও সক্ষমতা বাড়াতে চীন সরকার বাংলাদেশের পাশে থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশী। রবিবার (০৭ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টায় বাংলাদেশ-চায়না এক্সিবিশন সেন্টার হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্যমন্ত্রী এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

মন্ত্রী বলেন, ২০২৪ সালের মধ্যে এলডিসি থেকে বাংলাদেশের উত্তরণ হবে। যেটি ২০২৬ পর্যন্ত বাড়তে পারে। রফতানিতে প্রাধিকারমূলক সুবিধা বঞ্চিত হবো। যার ফলে রফতানিতে প্রতিযোগিতা এবং মার্কেট শেয়ার ধরে রাখার ক্ষেত্রে এটি বড় চ্যালেঞ্জ। রফতানি বাড়াতে পণ্য উৎপাদন এবং বহুমুখীকরণের ওপর জোর দিচ্ছি আমরা। আর এই প্রদর্শনী কেন্দ্রটি সেখানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। আমরা আশাকরি, বাণিজ্য খাতকে শক্তিশালী করতে ভবিষ্যতেও কারিগরী সহযোগিতা ও সক্ষমতা বাড়াতে চীন সরকার বাংলাদেশের পাশে থাকবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, বাণিজ্য প্রসারে পণ্য প্রদর্শনী সারাবিশ্বে একটি কৌশল হিসেবে দেখা হয়। তাই বিশ্বের বিভিন্ন বাণিজ্যমেলায় অংশ নিয়ে বাংলাদেশ তার সম্ভাবনা যাচাই করে। প্রতিবছর ঢাকাসহ দেশের বিভাগীয় শহরগুলোতে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় অংশগ্রহণ করে থাকে। কিন্তু স্থায়ী কোনো জায়গা না থাকায় বছর ধরে পণ্য প্রদর্শন করা সম্ভব হচ্ছিল না। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, রফতানি বাণিজ্য বাড়াতে এই কেন্দ্রটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

আনন্দবাজার/ডব্লিউ এস

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *