ডিসেম্বর ১, ২০২১

এবারে অনলাইনে রিটার্ন জমার সুযোগ

গেল করবর্ষে সুযোগ না থাকলেও চলতি করবর্ষে অনলাইনে রিটার্ন জমার সুযোগ পাবেন করদাতারা। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) নিজস্ব প্রযুক্তিগত সক্ষমতায় এ সুযোগ দিয়েছে। এনবিআর সংশ্লিষ্টরা দাবি করেছেন, অনলাইনে যে রিটার্ন ফরমটি পাওয়া যায় তা সহজ।
  • করদাতা নিজেই নিজের ফরম জমা দিতে পারবেন

গেল করবর্ষে সুযোগ না থাকলেও চলতি করবর্ষে অনলাইনে রিটার্ন জমার সুযোগ পাবেন করদাতারা। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) নিজস্ব প্রযুক্তিগত সক্ষমতায় এ সুযোগ দিয়েছে। এনবিআর সংশ্লিষ্টরা দাবি করেছেন, অনলাইনে যে রিটার্ন ফরমটি পাওয়া যায় তা সহজ। এনবিআর আয়কর নীতি শাখার সদস্য আলমগীর হোসেন আনন্দবাজারকে বলেন, করোনার প্রকোপে করদাতাদের রাজস্ব দপ্তরে উপস্থিত হয় রিটার্ন জমায় স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়ায়। এ পরিস্থিতিতে অনলাইনে রিটার্ন জমার সুযোগ দিয়েছে এনবিআর।

গত বছর করদাতারা অনলাইনে রিটার্ন জমা দেয়ার সুযোগ পাননি। ভিয়েতনামের এফপিটি ইনফরমেশন সিস্টেম করপোরেশন নামের একটি সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠান এনবিআরের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়ে অনলাইনে রিটার্ন জমা দেওয়ার সফটওয়্যারটি তৈরি করেছিল। কিন্তু তাদের সঙ্গে এনবিআরের চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় অনলাইনে রিটার্ন জমার লিংকটি বন্ধ করে দেয়া হয়। এতে করদাতারা অনলাইনে রিটার্ন জমা দিতে পারে না।

এবারে করদাতাদের জন্য অনলাইনে নতুন আয়কর রিটার্ন ফাইলিং সিস্টেম চালু করতে যাচ্ছে। এরই মধ্যে নতুন এপদ্ধতি উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। করদাতারা এনবিআর-এর ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইনে ব্রাউজ করে চলতি ২০২০-২০২১ কর বর্ষের আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে পারবে। এরইমধ্যে এনবিআরের আয়কর শাখা পরীক্ষামূলকভাবে নতুন করদাতাদের কাছে এ ওয়েবসাইটের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে জরিপ চালিয়ে ইতোবাচক ফল পেয়েছে। নতুন এপদ্ধতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলবে।

এর আগে ২০১৬–২০২০ করবর্ষে গত পাঁচ অর্থবছরে ২১ হাজার ১০৪ জন করদাতা অনলাইনে তাদের আয়কর রিটার্ন দাখিল করেছে। ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে দাখিল করা ২২ লাখ রিটার্নের মধ্যে ৭ হাজার ২০৯ জন করদাতা অনলাইনে আয়কর রিটার্ন জমা দিয়েছে। শতকরা হিসাবে যা মাত্র ০.৩৩ ভাগ। নতুন পদ্ধতিতে করদাতারা রিটার্ন জমার সঙ্গে সঙ্গে আয়কর সনদ ও রিটার্ন দাখিলের প্রাপ্তি স্বীকারপত্র অনলাইনেই পাবে। বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনে নিবন্ধিত মোবাইল ফোন, ল্যপটপ ও যে কোন ধরনের কম্পিাউটার থেকেও এনবিআরের ওয়েবসাইটে গিয়ে করদাতারা রিটার্ন জমা দিতে পারবে।

আরও পড়ুনঃ  আট শতাধিক বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠাচ্ছে জার্মানি

বাংলাদেশে এখন ৬৫ লাখের বেশি ইটিআইএনধারী করদাতা রয়েছে। গত করবর্ষে ২৪ লাখ করদাতা আয়কর রিটার্ন জমা দিয়েছে। করদাতাদের অধিকাংশ আয়কর অধ্যাদেশ, ১৯৮৪এর ৮২বিবি ধারা অনুযায়ী সার্বজনীন স্বনির্ধারণী পদ্ধতিতে আয়কর রিটার্ন দাখিল করে। কিন্তু আয়কর রিটার্ন ফরম জটিল হওয়ায় অধিকাংশ করদাতা নিজেই নিজের রিটার্ন ফরম পূরণে সক্ষম হয় না। করদাতা নিজস্ব আইজীবির সহায়তায় রিটার্ন ফরম পূরণ করে জমা দিয়ে থাকে। এবারে করদাতাদের অনলাইনে রিটার্ন ফরম জমায় উৎসাহিত করতে রিটার্ন ফরম সহজ এবং ছোট করা হবে বলে এনবিআর সূত্র নিশ্চিত হরেছে।

করোনা থেকে বাঁচতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে চিকিৎসকদের নির্দেশনা রয়েছে। এতে অনেকে আয়কর অফিসে উপস্থিত হয়ে রিটার্ন দিতে আগ্রহী হচ্ছে না অনেকে। এসব করদাতা অনলাইনে বাসাবাড়ি বা অফিসে থেকে রিটার্ন জমা দেয়া নিরাপদ মনে করছেন। বয়সে তরুণরা অনলাইনে কর পরিশোধ এবং রিটার্ন জমায় আগ্রহী বেশি।

এনবিআর সাবেক চেয়ারম্যন আবদুল মজিদ বলেন, অনলাইনে কর পরিশোধ এবং রিটার্ন জমা দেয়ার সুযোগ দেয়া হলে করদাতাদেও মধ্যে রিটার্ন জমায় উৎসাহ বাড়বে।

আনন্দবাজার/শহক

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আজকের পত্রিকা
ই-পেপার
শেয়ার বাজার
পন্য বাজার