নভেম্বর ২৮, ২০২১

এখনও চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সবজি-মাছ

এখনও চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সবজি-মাছ

নতুন করে দাম না বাড়লেও রাজধানীর বাজারগুলোতে আগের মতোই চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে শাক সবজি ও মাছ। সবজি-মাছের পাশাপাশি ডিম, তেল, চিনিসহ নিত্যপণ্যের দামে নাকাল হতে হচ্ছে সাধারণ ক্রেতাদের।

বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) রাজধানীর নিউমার্কেট কাঁচাবাজার, আড়ৎ ও পাইকারি দোকান ঘুরে এ চিত্র দেখা যায়।

খুচরা বাজারের বিক্রেতারা বলছেন, পাইকারি বাজার থেকেই এসব সবজি ও মাছ কিনতে হচ্ছে বেশি দামে। যার ফলে খুচরা বাজারে চড়া দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। খুব দ্রুত দাম কমার সম্ভাবনাও নেই। তবে বাজারে পণ্যের কোনো ঘাটতি নেই। পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকার পরও কেন দাম বেড়েই চলেছে তার কোনো সদুত্তরও নেই তাদের কাছে।

নিউমার্কেটের কাঁচাবাজার সংলগ্ন মাছের পাইকারি বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতি কেজি বড় রুই ৩০০-৩৫০ টাকা, মাঝারি রুই ২৫০-২৭০ টাকা, কাতল ২৫০-৩০০ টাকা, বড় পাঙ্গাশ ২০০-২৫০ টাকা, পাবদা ৫০০-৬০০ টাকা, গলদা চিংড়ি আকারভেদে ৬৫০-৭৫০ টাকা ও শিং ৪৫০-৫০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। ছোট, মাঝারি, বড় ইলিশ যথাক্রমে ৮০০, ১০০০ ও ১২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া কাঁচকি মাছ ৩০০ টাকা, মলা মাছ ২৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। পাইকারি বাজারে সামুদ্রিক মাছের দামও বেশ চড়া। প্রতিকেজি বড় আকারের সুরমা মাছ ৩০০ টাকা, রুপচাঁদা ৬০০-৮০০ টাকা, লাল কোরাল ৫০০-৬০০ টাকা, বাটা মাছ ২০০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। এসব মাছই খুচরা বাজারে ১০০-১৫০ টাকা বেশি দামে কিনতে হচ্ছে সাধারণ ক্রেতাদের।

সবজির দোকানগুলো ঘুরে দেখা যায়, গোলআলু, টমেটো, গোল বেগুন, লম্বা বেগুন, করলা, পটল, লাউ, কাঁচা পেঁপে, শসা, গাজর, ফুলকপি, বরবটি, চিচিঙ্গা, মিষ্টি কুমড়া, ঝিঙ্গা, কচুরলতি, ঢেঁড়শ, লাউশাক, পালং শাক, লাল শাক, কলমি শাক, কচু শাকসহ সবধরনের সবজির বাজার আগের মতোই চড়া। ৫০-৬০ টাকা কেজির নিচে নেই কোনো সবজি।

ঢেঁড়স, পটল, ঝিঙ্গা, করলা, চিচিঙ্গা ৬০-৮০ টাকা, বরবটি ৭০-৮০ টাকা, কাঁচকলা হালি প্রতি ৩৫-৪০ টাকা বিক্রি হচ্ছে।

দেশি পেঁয়াজ ৬০-৬৫ টাকা, কাঁচামরিচ ১০০-১১০ টাকা, রসুন ১৩০-১৪০ টাকা, গোল আলু ২৫ টাকা, দেশি আদা ১৩০-১৬০ টাকা, আমাদানি করা আদা ১৬০- ২০০ টাকা, কাঁচা পেঁপে ৩০-৪০ টাকা, গাজর ১০০-১২০ টাকা, ঢেঁড়শ ৬৫ টাকা, কচুর লতি ৭০ টাকা, শিম ১৩০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।

মাংসের বাজারে খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, আগের মতোই ব্রয়লার মুরগি ১৬০-১৭০ টাকা, লেয়ার মুরগি ২৩০-২৪০ টাকা, এবং সোনালি মুরগি ২৫০-২৭০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

অপরিবর্তিত রয়েছে গরু ও খাসির মাংসের দাম। গরুর মাংস হাড়সহ ৬০০ টাকা, হাড় ছাড়া ৭৫০ টাকা ও খাসির মাংস ৮০০-৯০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

আনন্দবাজার/শহক

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আজকের পত্রিকা
ই-পেপার
শেয়ার বাজার
পন্য বাজার