জুলাই ৭, ২০২২

আউটসোর্সিংয়ে দাস প্রথা!

আউটসোর্সিংয়ে দাস প্রথা!
  • চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে পথে নামলেন কর্মচারীরা

ঠিকাদার দাস প্রথা বিলুপ্ত করে কর্মরত সবার চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ আউটসোর্সিং কর্মচারী কল্যাণ পরিষদ। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সংগঠনটির উদ্দ্যেগে সারা দেশের হাজার হাজার আউটসোসিং কর্মচারীরা এ মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে পাবনা জেলা থেকে আশা বক্তারা বলেন, আমরা পাবনার স্বাস্থ্যখাতে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে আসছি। জনগণের সেবা করে আসছি। চাকরিতে যোগ দেয়ার পর প্রথম ৮ মাসের বেতন ঠিকমতো দেয়া হয় আমাদের। এরপরই আমাদের সাথে শুরু হয় প্রতারণা। দীর্ঘ ৩৫ মাস ধরে আমাদের বেতন বন্ধ। গাধার মতো কাজ করেও আমরা বেতন পাই না। অথচ একই খাতে কাজ করা অন্যরা সবকিছু ঠিকমতোই পাচ্ছেন। বক্তারা বলেন, এক দেশে দুই নীতি কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে আসা ভুক্তভোগী মামুন তার বক্তব্যে বলেন, বেতন পাই না আজকে ৩০ মাস হলো। এভাবে কি জীবন চলে? কাজ করে যদি বেতন না পাই তাহলে এর চেয়ে কষ্টের আর কি হতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন করছি, যেন আমাদের এই দাস প্রথা থেকে মুক্তি দেয়া হয়। আমারা যেন দু’বেলা দু’মুঠো ভাত খেয়ে জীবন চালাতে পারি সে ব্যবস্থা করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

বক্তারা আরো বলেন, আমাদের মহিলা শ্রমিকরা মাতৃত্বকালীন ছুটি পায় না। তারা সন্তান প্রসব করে যখন অফিসে আসে তখন শুনে তাদের চাকরি নেই। বছর শেষে নানা বাহানায় আমাদের কাছে বিপুল অংকের ঘুষ দাবি করা হয়। দিতে না পরলেই হতে হয় চাকরিচ্যুত। কোনো অপরাধ ছাড়া বিনা কারণেই কথায় কথায় চাকুরীচ্যুত করা দক্ষ কর্মচারীদের। চাকরি হারানোর খবরে শুনে একজন আত্মহত্যা করেছে বলেও দাবি করেন বক্তারা। তারা বলেন, একজন বেতন না পেয়ে এবং আরেকজন বিনা অপরাধে চাকরি হারানোর শোকে আত্মহত্যা করেছেন। আমরা এর বিচার চাই।

আরও পড়ুনঃ  শিশুবান্ধব আওয়ামী লীগ সরকার 

এসময় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দরা নানা দাবি তুলে ধরে বলেন, ঠিকাদার দাস প্রথা বিলুপ্ত করে কর্মরত সকলের চাকরীস্থায়ীকরণ করতে হবে। আউটসোর্সিং প্রথা বন্ধ করতে হবে। আউটসোর্সিং ও দৈনিক মজরি ভিত্তিক নিয়োজিত সব কর্মচারীর চাকরির বয়সসীমা শিথিল করতে হবে। এছাড়া সরকারি দপ্তর-অধিদপ্তর-পরিদপ্তরে ইতোমধ্যে অনেককে বিনা অপরাধে এবং ঠিকাদারকে ঘুষ না দিতে পারায় চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। তাদের পূর্ণবহাল করার দাবি, উৎসব বোনাস ও বকেয়া বেতন দ্রুত পরিশোধের জোর দাবি জানানো হয় মানববন্ধনে।

এসময় স্বাধীনতা আউটসোর্সিং কর্মচারী কল্যাণ পরিষদের সভাপতি মাহবুবুর রহমান আনিস, সাধারণ সম্পাদক এম এম জীবন, সাংগঠনিক সম্পাদক মজিবুর রহমান এবং সঞ্চালক রফিকুল ইসলামসহ বাংলাদেশ আউটসোর্সিংয়ের নেতৃবৃন্দরা বক্তব্য রাখেন।

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published.

ই-পেপার
প্রথম পাতা
খবর
অর্থ-বাণিজ্য
শেয়ার বাজার
মতামত
বিশ্ব বাণিজ্য
ক্যারিয়ার
খেলার মাঠ
প্রযুক্তি বাজার
শিল্পাঞ্চল
পণ্যবাজার
সারাদেশ
শেষ পাতা