ফেব্রুয়ারি ১, ২০২৩

আইনের মারপ্যাঁচে দেশে মুক্তি পাচ্ছে না ‘পাঠান’

আইনের মারপ্যাঁচে দেশে মুক্তি পাচ্ছে না ‘পাঠান’

বিশ্বের শতাধিক দেশে সাড়ে ৭ হাজারের বেশি প্রেক্ষাগৃহে বুধবার (২৫ জানুয়ারি) একযোগে মুক্তি পাচ্ছে বলিউড কিং শাহরুখ খানের ‘পাঠান’। সে তালিকায় কয়েকদিন ধরে বাংলাদেশেকেও যুক্ত করার চেষ্টা হচ্ছিলো। তবে, উদ্যোগটি আশার আলো জ্বালিয়েও মুক্তি পাচ্ছে না।

বাংলাদেশেও একই সময়ে সাফটা চুক্তির আওতায় এই ছবি মুক্তি দেওয়া যাবে কি না এমন বিষয় নিয়ে আজ (মঙ্গলবার) জরুরি বৈঠক হয় তথ্য মন্ত্রণালয়ে। যেখানে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্তাসহ চলচ্চিত্রকার কাজী হায়াৎ, হলমালিক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের অ্যাডভাইজার সুদীপ্ত কুমার দাস প্রমুখ। বৈঠক শেষে এটুকু নিশ্চিত হয় যে কাল তো (২৫ জানুয়ারি) নয়ই, খুব দ্রুত সময়ে ‘পাঠান’ বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে না। আইনি জটিলতাকেই কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

বৈঠক খুব ফলপ্রসূ হয়েছে জানেয়ে ‘পাঠান’ আমদানির আবেদনকর্তা পরিচালক অনন্য মামুন জানান, আইনি জটিলতার কারণে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারেননি সংশ্লিষ্টরা। কারণ, বিদেশি ছবি আমদানি নীতিমালায় দুই ধরণের আইন রয়েছে। একটিতে বলা আছে উপমহাদেশের কোনও ছবি আমদানি করা যাবে না। আরেকটিতে রয়েছে দেশের ছবি বিনিময় করে বিদেশি ছবি আমদানি করা যাবে। মূলত এই বিষয়টি সুরাহার প্রক্রিয়া চলছে।

তথ্য মন্ত্রণালয় দ্রুত এই বিষয়টির ব্যাখ্যা চেয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে একটি চিঠি পাঠাবে। কারণ, সিনেমা আমদানি ও রফতানি আইন তৈরি করেছে মূলত বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবারের বৈঠক প্রসঙ্গে হল মালিক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের অ্যাডভাইজার সুদীপ্ত কুমার দাস বলেন, ‘মন্ত্রণালয়ের আমদানি-রপ্তানি সংক্রান্ত কমিটির সদস্য এবং হল মালিকরা কয়েকজন বসেছিলাম। দুই পক্ষের যুক্তির বিষয়ে ‘পাঠান’ আনার পক্ষে আমরা বলেছি। বিপরীতে না আনা পক্ষেও যুক্তি দেওয়া হয়েছে। তবে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। যেহেতু এটা আমদানি-রফতানির বিষয়, তাই বাণিজ্য মন্ত্রণালয়েরও বিষয় আছে। তাই এ বিষয়ে সিদ্ধান্তের জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। দেখা যাক কী সিদ্ধান্ত আসে।’

আরও পড়ুনঃ  ‘ফালতু হিরোইন’ তাপসী

প্রসঙ্গত, পরিচালক সিদ্ধার্থ আনন্দ ‘পাঠান’ নির্মাণ করেছেন। এতে একজন ‘র’ এজেন্টের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন শাহরুখ খান। ভিলেন হিসেবে আছেন জন আব্রাহাম। আর নায়িকা দীপিকা পাড়ুকোন। বিশেষ চমক হয়ে দেখা দেবেন সালমান খানও। ছবিটির বাজেট প্রায় ২৫০ কোটি রুপি।

আনন্দবাজার/কআ

Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ই-পেপার
প্রথম পাতা
খবর
অর্থ-বাণিজ্য
শেয়ার বাজার
মতামত
বিশ্ব বাণিজ্য
ক্যারিয়ার
খেলার মাঠ
প্রযুক্তি বাজার
শিল্পাঞ্চল
পণ্যবাজার
সারাদেশ
শেষ পাতা